• রোববার   ২৯ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৯

  • || ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
নেই বৈধ কাগজ, বন্ধ ৫ টি ডায়াগনস্টিক সেন্টার সরকারের খাদ্য সহায়তা পেল সিলেটের ১৩ হাজার পরিবার শাহজালাল মাজারে ওরস উপলক্ষে ‘লাকড়ি তোড়া’ উৎসব ১২ ঘণ্টায় ৭ নবজাতকের জন্ম! জাফলং গিলছে বালুখেকোরা, অভিযান-জরিমানা সেমিফাইনালে মাধবপুর বালিকা দল
২৪৬

সিলেটে ১ মাসে সড়কে প্রাণ গেল ১৯জনের

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২ জানুয়ারি ২০২২  

সারাদেশের মধ্যে সদ্য গেল ২০২১ সালের শেষ মাসে (ডিসেম্বরে) দেশে ৩৮৩টি সড়ক দুর্ঘটনার ঘটনা ঘটেছে। এতে ৪১৮ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ৪৯৭ জন। সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে ঢাকা বিভাগে এবং সব থেকে কম দুর্ঘটনা ঘটেছে সিলেটে।

শনিবার (১ জানুয়ারি) ডিসেম্বর মাসের সড়ক দুর্ঘটনা নিয়ে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে রোড সেফটি ফাউন্ডেশন। সেখানেই এসব তথ্য জানানো হয়। সংগঠনটি সাতটি জাতীয় দৈনিক, পাঁচটি অনলাইন নিউজ পোর্টাল ও ইলেকট্রনিক গণমাধ্যমের তথ্যের ভিত্তিতে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে।

রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের পর্যবেক্ষণ ও বিশ্লেষণ বলছে, দুর্ঘটনাগুলোর মধ্যে ১৪৯টি (৩৮ দশমিক ৯০ শতাংশ) জাতীয় মহাসড়কে, ১২৪টি (৩২ দশমিক ৩৭ শতাংশ) আঞ্চলিক সড়কে, ৬৭টি (১৭ দশমিক ৪৯ শতাংশ) গ্রামীণ সড়কে, ৩৯টি (১০ দশমিক ১৮ শতাংশ) শহরের সড়কে এবং অন্যান্য স্থানে ৪টি (১ দশমিক ০৪ শতাংশ) সংঘটিত হয়েছে। 

এর মধ্যে ৫৮টি (১৫ দশমিক ১৪ শতাংশ) মুখোমুখি সংঘর্ষ, ১২৯টি (৩৩ দশমিক ৬৮ শতাংশ) নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে, ১২৩টি (৩২ দশমিক ১১ শতাংশ) পথচারীকে চাপা/ধাক্কা দেয়া, ৬২টি (১৬ দশমিক ১৮ শতাংশ) যানবাহনের পেছনে আঘাত করা এবং ১১টি (২ দশমিক ৮৭ শতাংশ) অন্যান্য কারণে ঘটেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মোট দুর্ঘটনার মধ্যে ১৬৭টি মোটরসাইকেলের, যা মোট দুর্ঘটনার ৪৪ শতাংশ। মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় ১৭৮ জন নিহত হয়েছেন, যা মোট মৃত্যুর ৪৩ শতাংশ।

ঢাকা বিভাগে সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে। এ বিভাগে ১০২টি দুর্ঘটনায় ১১৩ জন নিহত হয়েছেন। আর রাজধানী শহরে ১৫টি দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ১৮ জন।

সবচেয়ে কম সিলেট বিভাগে। সিলেট বিভাগে ১৬টি দুর্ঘটনায় ১৯ জন নিহত হয়েছেন।

চট্টগ্রাম জেলায় সবচেয়ে বেশি দুর্ঘটনা ও প্রাণহানি ঘটেছে। ২৩টি দুর্ঘটনায় ২৮ জন নিহত। সবচেয়ে কম সুনামগঞ্জ জেলায়। ৩টি দুর্ঘটনা ঘটলেও কেউ হতাহত হয়নি। রাজধানী ঢাকায় ১৫টি দুর্ঘটনায় ১৮ জন নিহত হয়েছে।

এসব দুর্ঘটনার জন্য ত্রুটিপূর্ণ যানবাহন, বেপরোয়া গতি, চালকদের বেপরোয়া মানসিকতা, অদক্ষতা ও শারীরিক-মানসিক অসুস্থতা, বেতন ও কর্মঘণ্টা নির্দিষ্ট না থাকা, মহাসড়কে স্বল্পগতির যানবাহন চলাচল, তরুণ ও যুবকদের বেপরোয়া মোটরসাইকেল চালানো, জনসাধারণের মধ্যে ট্রাফিক আইন না জানা ও না মানার প্রবণতা, দুর্বল ট্রাফিক ব্যবস্থাপনা, বিআরটিএর সক্ষমতার ঘাটতি এবং ১০ গণপরিবহন খাতে চাঁদাবাজিকে দায়ী করা হয়েছে প্রতিবেদনে। সড়ক দুর্ঘটনা এড়াতে এসব সমস্যা সমাধানের সুপারিশ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত (২০২১) নভেম্বর মাসে ৩৭৯টি সড়ক দুর্ঘটনায় ৪১৩ জন নিহত হয়েছিল। গড়ে প্রতিদিন নিহত হয়েছিল ১৩ দশমিক ৭৬ জন। ডিসেম্বর মাসে ৩৮৩টি সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে ৪১৮ জন। গড়ে প্রতিদিন নিহত হয়েছে ১৩ দশমিক ৪৮ জন। দুর্ঘটনায় ১৮ থেকে ৬৫ বছর বয়সী কর্মক্ষম মানুষ নিহত হয়েছেন ৩৩৯ জন, অর্থাৎ ৮১ দশমিক ১০ শতাংশ।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার