• শনিবার   ২৮ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৪ ১৪২৯

  • || ২৫ শাওয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
তরমুজ ফ্রিজে রাখবেন না যে কারণে হবিগঞ্জ জেলার শ্রেষ্ঠ ইউএনও মাধবপুরের মঈনুল পদ্মাসেতু দাঁড়িয়ে যাওয়ায় বিএনপির হিংসা হচ্ছে বড়লেখায় হত্যা চেষ্টা মামলায় প্রধান শিক্ষক কারাগারে বালি উত্তোলন না করার দাবিতে তাহিরপুরে মানববন্ধন বিশ্বনাথে জেলা আ’লীগের পক্ষ থেকে ত্রাণ বিতরণ করলেন শফিক চৌধুরী
৩৩

ডিপিএলে এক মৌসুমে হাজার রানের কীর্তি বিজয়ের

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৬ এপ্রিল ২০২২  

ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে (ডিপিএল) প্রথম বাংলাদেশি ব্যাটার হিসেবে এক হাজার রান করে ইতিহাস গড়েছেন এনামুল হক বিজয়। লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের বিপক্ষে সাইফ হাসানকে টপকে আসরের সর্বোচ্চ রান করার রেকর্ড গড়েছিলেন তিনি। তাঁর সামনে হাতছানি ছিল এক মৌসুমে এক হাজার রানের কীর্তি গড়ার। অবশেষে সেটিও পেয়ে গেলেন প্রাইম ব্যাংকের এই উইকেটরক্ষক ব্যাটার। রূপগঞ্জ টাইগার্সের বিপক্ষে আগে ফিল্ডিং করতে নেমে রুবেল ও করিমের বোলিংয়ে ২২৯ রানেই বেধে দেয় তাদের। জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতে কিছুটা ধীরগতির করলেও ধীরে ধীরে আগ্রাসী হতে থাকেন বিজয়।

শুরুতে ২৬ বলে ২৭ রান করার পর মহিউদ্দিনের ওভারেই ১০ রান তোলেন তিনি। শরিফুল্লাহর ওভারেও নেন ১০ রান। ইনিংসের ১২তম ওভারে নাহিদের প্রথম বলে ফাইন লেগে ছয় মেরে ৩৮ বলেই হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন এই ওপেনার।

হাজার রানের ক্লাবে ঢুকতে বিজয়ের প্রয়োজন ছিল আরও ৩০ রান। ধীরে ধীরে সেটির দিকেই যান তিনি। অবশেষে সেই কাঙ্ক্ষিত মুহূর্তটি আসে ১৮তম ওভারের শেষ বলে। নাহিদ হাসানের করা বলটি কাভারে ঠেলে দিয়ে এক রান নিয়ে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ডিপিএলের এক মৌসুমে এক হাজার রান করার রেকর্ড গড়েন বিজয়।

এক হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করার পরপরই ব্যাট তুলে উদযাপন করেন জাতীয় দলের রাডারে থাকা এই ক্রিকেটার। সেই সঙ্গে শুভেচ্ছা পান ওয়ানডে দলের অধিনায়ক তামিমসহ তার দলের সতীর্থদের। এমনকি তাকে অভিনন্দন জানান প্রতিপক্ষ দলের সতীর্থরাও। এই রিপোর্ট লেখা অব্দি ৬০ বলে ৭১ রান করে অপরাজিত রয়েছেন বিজয়।

উল্লেখ্য, ২০১৮-১৯ মৌসুমে প্রাইম দোলেশ্বরের হয়ে ৮১৪ রান করেছিলেন সাইফ হাসান। সাইফ ও বিজয়ের পরেই রয়েছেন আরেক ওপেনার নাঈম শেখ। ২০১৮-১৯ মৌসুমে লিজেন্ডস অব রূপগঞ্জের হয়ে ৮০৭ রান করেন নাঈম।

একই মৌসুমে চতুর্থ সর্বোচ্চ ৭৮১ রান করেন রকিবুল হাসান। এই তলিকায় রয়েছেন আরেক ওপেনার লিটন দাস। ২০১৭ মৌসুমে আবাহনী লিমিটেডের হয়ে ৭৫২ রান করেন লিটন।

এর আগে স্টিভ টিকোলো (১২০০+) ও গাজী আশরাফ লিপুরও (১৯৮৫/৮৬ মৌসুমে ১০০৮ রান) রয়েছে এক মৌসুমে হাজার রান করার রেকর্ড।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার