• সোমবার   ১৮ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৩ ১৪২৮

  • || ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
টাঙ্গুয়ার হাওরের ময়লা পরিষ্কার করলেন ডিসি মৌলভীবাজার ও শ্রীমঙ্গলে ১৪ ঘণ্টার জন্য গ্যাস সরবরাহ বন্ধ সিলেটসহ ৩৫ জেলায় বিজিবি মোতায়েন শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের করোনার টিকাদান কার্যক্রম শুরু লিডিং ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসেই মিলছে টিকা সিলেটে শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিমা বিসর্জন মৌলভীবাজারে পাশাপাশি মসজিদ-মন্দির, সম্প্রীতির অনন্য নিদর্শন

এবার মঙ্গলে ভূমিকম্পনের রসদ পেলেন বিজ্ঞানীরা

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২১  

মঙ্গলগ্রহ ঘিরে দিন দিন বাড়ছে বিস্ময়। প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে ভূমিকম্পনের পর এবার নতুন করে গ্রহতত্ত্বের রহস্য উন্মোচনের রসদ পেলেন বিজ্ঞানীরা। তাদের মধ্যে প্রশ্ন উঠেছে, এমন ভূমিকম্প পৃথিবীতে হলে কী পরিণতি হতো তা নিয়েও!

পৃথিবীতেই শুধু ভূমিকম্প হয় না, সৌরজগতের অন্য অংশেও মাটি কেঁপে ওঠে। যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসার বিজ্ঞানীরা এখন এ নিয়ে পুরোপুরি একমত। যার মধ্য দিয়ে আরও একধাপ এগিয়ে গেল গ্রহজগৎ সৃষ্টির রহস্য উন্মোচন।

এখন প্রশ্ন উঠেছে, মঙ্গলের মাটিতে যে কম্পন হয়েছে, তা পৃথিবীতে হলে কী সব ধ্বংস হয়ে যেত! কারণ এর স্থায়িত্ব ছিল দেড় ঘণ্টার মতো। গেল এক মাসে বিজ্ঞানীরা তিনবার মঙ্গলগ্রহের মাটি কেঁপে ওঠার প্রমাণ পেয়েছেন। যার মধ্যে সব শেষটি ছিল সব থেকে বেশি ভয়াবহ।

গেল ১৮ সেপ্টেম্বর মার্কিন মহাকাশ সংস্থা নাসার ইনসাইট ল্যান্ডার মঙ্গলযানটি মঙ্গলের সমতলেই ছিল। এরপর যানটির ভূমিকম্প নির্দেশক যন্ত্র সিসমোমিটারে ধরা পড়ে কম্পন। কাকতালীয়ভাবে ওই দিনই ইনসাইট ল্যান্ডার মঙ্গলগ্রহে এক হাজার দিন পূর্ণ করে। সেদিন এটি মঙ্গলগ্রহে সবচেয়ে বড় ওই দীর্ঘতম ভূমিকম্পের স্বাক্ষী হয়।

মঙ্গলগ্রহে এই বড় ধরনের ভূমিকম্প সেখানকার রহস্য উন্মোচনে বিজ্ঞানীদের সাহায্য করতে পারে বলে একাধিক প্রতিবেদনে উঠে এসেছে। যেভাবে এক্স-রে ও সিএটি স্ক্যান কাজ করে, সেভাবে বিজ্ঞানীরা ভূতরঙ্গ বিশ্লেষণ করে মঙ্গলগ্রহের কোরের গঠন সম্পর্কে জানতে পারবেন।

বিজ্ঞানীরা আশা করছেন, মঙ্গলের অভ্যন্তরে আরও বিস্তারিত তথ্য পেলে গ্রহটির জন্ম কীভাবে হয়েছিল এবং সময়ের সঙ্গে এটি কীভাবে বিকশিত হয়েছে, সে সম্পর্কে সূত্র মিলতে পারে। অন্য গ্রহে প্রাণের সন্ধানের জন্যও সেই জ্ঞান জ্যোতির্বিজ্ঞানীদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার