• সোমবার   ১৮ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৩ ১৪২৮

  • || ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
টাঙ্গুয়ার হাওরের ময়লা পরিষ্কার করলেন ডিসি মৌলভীবাজার ও শ্রীমঙ্গলে ১৪ ঘণ্টার জন্য গ্যাস সরবরাহ বন্ধ সিলেটসহ ৩৫ জেলায় বিজিবি মোতায়েন শাবিপ্রবি শিক্ষার্থীদের করোনার টিকাদান কার্যক্রম শুরু লিডিং ইউনিভার্সিটির ক্যাম্পাসেই মিলছে টিকা সিলেটে শান্তিপূর্ণভাবে প্রতিমা বিসর্জন মৌলভীবাজারে পাশাপাশি মসজিদ-মন্দির, সম্প্রীতির অনন্য নিদর্শন

চীনা ফোনের বিরুদ্ধে তথ্য পাচারের অভিযোগ

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১  

ব্যবহারকারীর ব্যক্তিগত তথ্য সংগ্রহ করে সিঙ্গাপুরে পাঠানোর অভিযোগ উঠেছে চীনা স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান শাওমির বিরুদ্ধে। ইউরোপের দেশ লিথুয়ানিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে এই অভিযোগ করেছে। চীনা ফোন ফেলে দেওয়ারও আহ্বান জানান দেশটির উপ-প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, লিথুয়ানিয়ার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ‘ন্যাশনাল সাইবার সিকিউরিটি সেন্টার’ থেকে প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে শাওমির ফোনে বিল্ট-ইন সেন্সরশিপ ফিচার যুক্ত করা হয়েছে। এছাড়াও হুয়াওয়ের ফোনে নিরাপত্তা দুর্বলতা রয়েছে। তাই নিজ দেশের গ্রাহকের তথ্য সুরক্ষায় শাওমি ফোন ব্যবহার থেকে বিরত থাকা এবং পুরনো ফোন ফেলে দেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে ইউরোপের দেশটি।

রয়টার্স আরও জানায়, শাওমির ফোনগুলো ব্যবহারকারীর তথ্য এনক্রিপ্ট করে সিঙ্গাপুরের একটি ডেটা সার্ভারে পাঠায়। হুয়াওয়ের পি৪০ ফাইভজি মডেলের স্মার্টফোনেও নিরাপত্তাত্রুটি মিলেছে। তবে আরেক চীনা প্রতিষ্ঠান ওয়ানপ্লাসের স্মার্টফোনে কোনো ত্রুটি পায়নি সাইবার নিরাপত্তা সংস্থাটি।

হুয়াওয়ে এমন অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছে, কোনো ব্যবহারকারীর তথ্য বাইরে পাচার করা হয় না। আর শাওমি বলেছে, তারা যোগাযোগ সেন্সর করে না।

শাওমি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শাওমি'র ডিভাইসগুলো তার ব্যবহারকারীদের কাছে এবং তার থেকে যোগাযোগকে কোনোভাবেই সেন্সর করে না। শাওমি তার স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত আচরণ যেমন, সার্চ, কলিং, ওয়েব ব্রাউজিং অথবা তৃতীয় পক্ষের যোগাযোগ সফটওয়্যার ব্যবহারকে কখনোই সীমাবদ্ধ বা বন্ধ করেনি এবং করবেও না। শাওমি তার সব ব্যবহারকারীর আইনগত অধিকারকে সম্পূর্ণভাবে সম্মান করে ও রক্ষা করে চলে।

তবে লিথুয়ানিয়ার উপ-প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্গিরিস বলেছেন, 'আমরা নতুন আর কোনো চীনা ফোন না কেনা এবং যারা কিনেছেন, তাদেরকে ফোনগুলো যত দ্রুত সম্ভব ফেলে দেওয়ার পরামর্শ দিচ্ছি।'

লিথুয়ানিয়ার সাইবার নিরাপত্তা কেন্দ্র তাদের প্রতিবেদনে বলেছে, শাওমি’র ফ্ল্যাগশিপ মি ১০টি ৫জি ফোনের ভেতরে এমন ধরনের সফটওয়ার’ আছে যেটি ‘তিব্বত মুক্ত কর’, ‘তাইওয়ানের স্বাধীনতা দীর্ঘজীবী হোক’, গণতন্ত্রের আন্দোলন’ এর মতো স্লোগানগুলো শনাক্ত করে তা সেন্সর করতে পারে।

শাওমি ফোনের ইন্টারনেট ব্রাউজার এবং অ্যাপ সিস্টেমে ওই ধরনের ৪৪৯’র ও বেশি উক্তি বা স্লোগান শনাক্ত করা সম্ভব বলে জানানো হয়েছে।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার