• বুধবার   ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২ ||

  • আশ্বিন ১৩ ১৪২৯

  • || ০১ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
শাবিপ্রবিতে ১ থেকে ৯ অক্টোবর পর্যন্ত ছুটির ঘোষণা জেলা পরিষদের সদস্য প্রার্থী তানভীরের মতবিনিময় সভা গুলিতে নয়, ইটের আঘাতে যুবদল কর্মী শাওনের মৃত্যু: এসপি সাকিব-মুশফিক ছাড়া প্রথম সিরিজ জয় এশিয়া কাপ খেলতে সিলেটে জাহানারা-জ্যোতিরা নবির কাছে সিংহাসন হারালেন সাকিব বিশ্বনাথে শেখ হাসিনার জন্মদিনে আ’লীগের কেক কাটা
৪২

সিলেটের সেই গাজী-কালুর টিলার নিরাপত্তা জোরদার 

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৩ আগস্ট ২০২২  

সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (শাবিপ্রবি) লোকপ্রশাসন বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মো. বুলবুল আহমেদ (২২) হত্যার ঘটনাস্থলসহ আশপাশের এলাকায় নিরাপত্তা জোরদার করতে কাজ শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। 

সোমবার (২২ আগস্ট) বিকেল চারটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘নিউজিল্যান্ড’ এলাকার গাজী-কালুর টিলায় দু'জন নিরাপত্তাকর্মীকে পাহারা দিতে দেখা যায়। তারা এদিকে ঘুরতে আসা শিক্ষার্থীদের সচেতন করার পাশাপাশি তাদের নিরাপত্তা রক্ষায় বাঁশি বাজিয়ে চারদিক সতর্ক করছেন। এর আগে একই এলাকায় পরীক্ষামূলকভাবে একটি সৌরবাতির খুঁটি স্থাপন করা হয়েছে। সন্ধ্যার পর থেকে এটি জ্বলতে শুরু করে।

বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গত ২৫ জুলাই সন্ধ্যার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘নিউজিল্যান্ড’ এলাকার গাজী-কালুর টিলায় ঘুরতে গিয়ে ছিনতাইকারীদের ছুরিকাঘাতে নিহত হন বুলবুল। পরিত্যাক্ত এলাকা হওয়ায় সেখানে নিরাপত্তাকর্মী তেমন থাকে না। তবে মাঝেমধ্যে একজন নিরাপত্তাকর্মী টিলাগুলো দেখাশুনা করে থাকেন। অন্ধকার হওয়ায় সন্ধ্যার পর তাকে আর ওদিকে রাখা হয় না। এছাড়া বৈদ্যুতিক বাতি কিংবা সৌরবাতির খুঁটি না থাকায় আলোর অভাবে সন্ধ্যার পর ওই স্থানসহ কিছু এলাকা অন্ধকার হয়ে পড়তো। তাই বহিরাগতরা মাদকসেবন ও ছিনতাইয়ের লক্ষে গাজিকালুসহ আশপাশের এলাকায় ওতপেতে বসে থাকতো। 

বিশ্ববিদ্যালয়ের বেগম সিরাজুন্নেসা হলের শিক্ষার্থী সায়মন পুস্প জানান, নিউজিল্যান্ড এলাকাটি আমাদের হলের পাশেই। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভেতরের বেশ কিছু টিলাসংলগ্ন স্থানে সড়কবাতি না থাকায় সন্ধ্যার পর থেকে এসব এলাকা অন্ধকারাচ্ছন্ন থাকে। এতে শিক্ষার্থীরা সন্ধ্যার পর এসব এলাকায় গেলে ছিনতাইয়ের শিকার হয়। বহিরাগত ব্যক্তিরা এসব অপরাধ ঘটাচ্ছেন। বুলবুল হত্যার পর প্রশাসন থেকে নিরাপত্তাকর্মী বাড়ানো হয় ওই এলাকায়। এছাড়া একটি সৌরবাতিও স্থাপন করা হয়েছে। তবে এর সংখ্যা আরও বাড়ানো দরকার।

বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা কর্মকর্তা মো. সাইফুল ইসলাম বলেন, নিউজিল্যান্ডসহ আশপাশের এলাকায় নিরাপত্তা বৃদ্ধিতে দিনে দুইশিফটে দু'জন করে নিরাপত্তাকর্মী দায়িত্ব পালন করে থাকে। রাতেও দুইজন নিরাকপত্তাকর্মী গাজিকালু টিলাসহ আশপাশের এলাকা নজরদারিতে রাখে। এতে এদিকে কেউ প্রবেশ করলে তার কারণ জানতে চাওয়া হয়। তবে এখন রাতের বেলায় বহিরাগতদের তেমন একটা দেখা যায়না।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রকৌশলী সৈয়দ হাবিবুর রহমান বলেন, নিউজিল্যান্ড এলাকার টিলাসহ আশপাশের এলাকায় বিদ্যুৎ–সংযোগ দিয়ে বাতির ব্যবস্থা করতে হলে অনেক সময় লেগে যাবে। তাই দ্রুততম সময়ে ওই এলাকায় আলোর ব্যবস্থা করতে বর্তমানে এখানে পরীক্ষামূলকভাবে একটি সৌরবাতি জ্বালানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে। দ্রুতই তার সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর মো. ইশরাত ইবনে ইসমাইল বলেন, নিউজিল্যান্ড এলাকায় একটি মাজার রয়েছে। ধর্মীয় স্থান হওয়ায়ে এখানে কাউকে যাওয়াতে নিষেধ করা যায় না। নিরাপত্তার দিকে গুরুত্ব দিয়ে আগের চেয়ে নিরাপত্তা নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। রাত দশটার মধ্যে ছাত্রীদের হলে প্রবেশের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। নিউজিল্যান্ড ও গাজিকালো এলাকায় দিন-রাত নজরদারি ও নিরাপত্তা বৃদ্ধিতে নিরাপত্তাকর্মী রাখা হয়েছে। আমাদের শিক্ষার্থীদেরকেও ওইসব এলাকায় আসা যাওয়াতে একটু সচেতন হওয়ার অনুরোধ থাকবে। এছাড়া আমাদের প্রক্টরিয়ালদলের টহলও আগের চেয়ে বাড়ানো হয়েছে। প্রতিরাত দশটায় পর ক্যাম্পাসের বিভিন্নস্থানে প্রক্টরিয়াল দল টহল দিয়ে থাকেন।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার