• শনিবার   ০৪ ডিসেম্বর ২০২১ ||

  • অগ্রাহায়ণ ২০ ১৪২৮

  • || ২৭ রবিউস সানি ১৪৪৩

সর্বশেষ:
তাহিরপুরে শ্রীপুর উত্তর ইউনিয়নে নৌকার একক প্রার্থী সিলেট ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীদের হুশিয়ারি! নিখোঁজের দু’দিন পর রোমানার লাশ মিললো নদীতে শেষ ওভারের রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ে হোয়াইটওয়াশ বাংলাদেশ পরীক্ষার্থীদের হলে পৌঁছে দিচ্ছে সিলেট জেলা ছাত্রলীগ

সিলেট থেকে স্পেনে গিয়েই স্বামীকে অচেতন করে স্ত্রীর চম্পট!

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২০ অক্টোবর ২০২১  

সিলেট থেকে স্পেনে গিয়েই স্বামীকে চেতনানাশক খাইয়ে এক প্রবাসীর স্ত্রী (২৫)পালিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। গত ১০ অক্টোবর রাতে স্পেনের পর্যটন নগরী বার্সেলোনায় এ ঘটনা ঘটে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে ভুক্তভোগী স্বামী মিনহাজুল ইসলাম মুক্তা পালিয়ে যাওয়া স্ত্রী মুনিরা খানম মুন্নীর বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন। বিষয়টি এখন জানাজানি হয়েছে।

বার্সেলোনার স্থানীয় একটি হলে সংবাদ সম্মেলনে এ বিষয়ে বিস্তারিত জানান ভুক্তভোগী স্বামী মিনহাজুল ইসলাম মুক্তা। মিনহাজ বিয়ানীবাজার উপজেলার কুড়ারবাজার ইউনিয়নের আঙ্গুরা মোহাম্মদপুর গ্রামের নজরুল ইলামের ছেলে। তিনি বিয়ানীবাজারের খাসা শহীদ টিলা এলাকায় বিয়ে করেন।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মিনহাজুল ইসলাম মুক্তা বলেন, গত ১০ অক্টোবর তারিখে ফ্যামিলি ভিসার মাধ্যমে স্ত্রী মুন্নী এবং ২ বছরের শিশু সন্তান আয়ানকে স্পেনের বার্সেলোনায় নিয়ে আসেন তিনি। সন্তানসহ স্ত্রী বার্সেলোনায় আসার রাতেই তাকে শরবতের সাথে চেতনানাশক খাইয়ে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী সবার অগোচরে ফ্রান্স প্রবাসী পরকীয়া প্রেমিকের সাথে পালিয়ে যান মুন্নী। সাথে করে সন্তানকেও নিয়ে যান। এ সময় দেশ থেকে নিয়ে আসা স্বর্ণালঙ্কার, নগদ ইউরোসহ মূল্যবান মালামাল সঙ্গে নিয়ে গেছেন তিনি।

মুনিরা খানম মুন্নীকে ‘ভয়ংকর প্রতারক’ উল্লেখ করে সংবাদ সম্মেলনে মিনহাজ বলেন, এ সমস্যা পারিবারিকভাবে নিষ্পত্তির জন্য তিনি তাঁর শ্বশুর বিয়ানীবাজারের খাসা শহীদ টিলার ইকবাল খানের দ্বারস্থ হওয়ার পরও কোন সুষ্ঠু সমাধান পাননি। আর এ জন্যে তিনি সংবাদ সম্মেলন করে সংবাদের মাধ্যমের এবং কমিউনিটি নেতৃবৃন্দের শরণাপন্ন হয়েছেন।

মিনহাজ জানান, বিয়ে পরবর্তী স্পেনে নিয়ে আসা পর্যন্ত স্ত্রীর পিছনে তার প্রায় ৪০ হাজার ইউরো বা বাংলাদেশী টাকায় প্রায় ৪০ লক্ষ টাকা ব্যয় হয়েছে। তিনি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচারের জন্য স্থানীয় প্রশাসনে অভিযোগসহ আইনি প্রক্রিয়া শুরু করেছেন।

উপস্থিত সাংবাদিকের এক প্রশ্নের উত্তরে ভুক্তভোগী মিনহাজ বলেন, তিনি ধারণা করছেন মুন্নী তার সাথে প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে যে পরকীয়া প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়েছে সে ফ্রান্স প্রবাসী ও বিয়ানীবাজারের বাসিন্দা।  তিনি এ ধরনের লজ্জা ও প্রতারণার ঘটনা যাতে ভবিষ্যতে আর কারও সাথে না ঘটে সেজন্য সকলকে সচেতন থাকার অনুরোধ করেন। এ ছাড়া তাঁর দুই বছরের সন্তান আয়ানকে তার কাছে ফিরিয়ে নিয়ে আসতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার