• বুধবার   ০৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ২৬ ১৪২৯

  • || ১৬ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
এইচএসসি–সমমানের পরীক্ষায় গড় পাসের হার ৮৫.৯৫ শতাংশ ফের সাফের ফাইনালে বাংলাদেশ ক্রিকেটকে বিদায় বলে দিলেন কামরান আকমল চাঁদপুরে জামায়াত নেতা গ্রেফতার মাধবপুরে রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মুক্তিযোদ্ধা ফুল ইসলামের দাফন সম্পন্ন
২৩

বিপদে পড়িনি, সতর্ক থাকতে হবে: সচিব সভায় প্রধানমন্ত্রী

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৭ নভেম্বর ২০২২  

ভবিষ্যতে বাংলাদেশ যাতে অর্থনৈতিক সংকটে না পড়ে, সে জন্য সংশ্লিষ্টদের আগাম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার (২৭ নভেম্বর) সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সচিব সভায় দেওয়া বক্তব্যে তিনি এ নির্দেশনা দেন।


করোনা মহামারির পর রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সৃষ্টি বৈশ্বিক পরিস্থিতির কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, আমরা এখনই যে বিপদে পড়েছি তা কিন্তু না। কিন্তু আমার কথাটা হচ্ছে, আমার আগাম ব্যবস্থাটা নিতে হবে যেন ভবিষ্যতে কোনো বিপদে দেশ না পড়ে বা দেশের মানুষ না পড়ে। আমাদের সেই সতর্কতাটা একান্তভাবে দরকার এবং সেই সতর্কবার্তাটাই কিন্তু আমরা দিচ্ছি।  

সরকারি কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি বলেন, যেকোনো চ্যালেঞ্জ মোকাবিলার জন্য আমাদের প্রস্তুত থাকতে হবে। আত্মবিশ্বাসী থাকতে হবে, সেভাবে মানুষকে সঙ্গে নিজে কাজ করতে হবে।  

উন্নত দেশগুলোর রিজার্ভের প্রসঙ্গ তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, যুদ্ধের কারণে দু-একটি দেশ হয়তো খুব লাভবান, কিন্তু বেশিরভাগ দেশ একেবারে...যারা উন্নত দেশ তারাও কিন্তু হিমশিম খাচ্ছে। সেই দিকে লক্ষ্য রেখেই আমাদের এখন ব্যয় সীমিত করা দরকার, সাশ্রয়ী হওয়া দরকার।  

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের রিজার্ভ যেটা হচ্ছে আমাদের তিন মাসের খাদ্য কেনার মতো রিজার্ভ থাকলেই যথেষ্ট। সেখানে আমাদের পাঁচ-ছয় মাসের হিসাব আছে। তারপরও এখন যা অবস্থা, তাতে আমাদের একটু সাশ্রয়ী হতে হবে, আরেকটু সচেতন হতে হবে।  

সবাইকে সাশ্রয়ী হওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমি মনে করি আমাদের নিজেদেরও সাশ্রয়ী হওয়া এই কারণে দরকার, আবার আমি বলছি যে, আমরা ভবিষ্যতে যাতে সমস্যায় না পড়ি। কাজেই এখন থেকে আমাদের সেই ব্যবস্থা নেওয়া একান্তভাবে দরকার।  

এ সময় বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হওয়ার পরামর্শ দেন শেখ হাসিনা।

গুরুত্ব ও প্রয়োজনীয়তা বিচার করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রকল্প নেওয়ার নির্দেশনা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই অগ্রাধিকার ভিত্তিতে আমাদের সব পরিকল্পনা বা প্রকল্প বাছাই করতে হবে। বেছে নিয়ে এবং কোনগুলো দ্রুত শেষ করা যায়, আমরা সেগুলো আগে শেষ করে নতুনটি যাতে ধরতে পারি সেই ব্যবস্থা নিতে হবে।  
 
মাদক-জঙ্গিবাদের বিষয়ে সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের একটি ঘটনা ঘটেছিল হলি আর্টিজানে। আমরা কয়েক ঘণ্টার মধ্যে সেটি নিয়ন্ত্রণ করি। তারপর থেকে আর বাংলাদেশে এই রকম কোনো দুর্যোগ দেখা দেয়নি। কিন্তু তারপরও বাংলাদেশের ওপর অনেকেরই নানা রকম প্রভাব আছে।  

শেখ হাসিনা বলেন, আমাদের এসব বিষয়ে সবসময় সজাগ থাকতে হবে। মানুষের মাঝে সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। মাদক-জঙ্গিবাদ থেকে আমাদের যুবসমাজ যেন দূরে থাকে, সেইদিকে আমাদের বিশেষভাবে দৃষ্টি দেওয়া একান্তভাবে দরকার।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার