ব্রেকিং:
রমজানে সিলেটসহ সারাদেশে নতুন সময়সূচিতে চলছে অফিস সিলেটে স্ত্রীর সঙ্গে ডিভোর্সের আত্মহত্যা যুবকের! পবিত্র রমজান মাসের মর্যাদা, ইবাদত ও ফজিলত রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সক্রিয় জৈন্তাপুরে বাজার মনিটরিং চুনারুঘাটে দুর্ঘটনায় চাশ্রমিক-সন্তান নিহত অস্ত্রোপচারে দুর্ঘটনার দায় হাসপাতাল ও চিকিৎসকের: স্বাস্থমন্ত্রী হাইতির প্রধানমন্ত্রী হেনরির পদত্যাগ গত ১৫ বছরে দেশের চেহারা বদলে গেছে : এম এ মান্নান এমপি বিএসএমএমইউ’র নতুন উপাচার্য ডা. দীন মোহাম্মদ নূরুল হক রমজানের প্রথম তারাবিতে সিলেটে মুসল্লিদের ঢল রমজানে আবহাওয়া যেমন থাকবে সিলেটে?
  • শনিবার ১৫ জুন ২০২৪ ||

  • আষাঢ় ১ ১৪৩১

  • || ০৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৫

সর্বশেষ:
রমজানে সিলেটসহ সারাদেশে নতুন সময়সূচিতে চলছে অফিস সিলেটে স্ত্রীর সঙ্গে ডিভোর্সের আত্মহত্যা যুবকের! পবিত্র রমজান মাসের মর্যাদা, ইবাদত ও ফজিলত রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে সক্রিয় জৈন্তাপুরে বাজার মনিটরিং চুনারুঘাটে দুর্ঘটনায় চাশ্রমিক-সন্তান নিহত অস্ত্রোপচারে দুর্ঘটনার দায় হাসপাতাল ও চিকিৎসকের: স্বাস্থমন্ত্রী হাইতির প্রধানমন্ত্রী হেনরির পদত্যাগ গত ১৫ বছরে দেশের চেহারা বদলে গেছে : এম এ মান্নান এমপি বিএসএমএমইউ’র নতুন উপাচার্য ডা. দীন মোহাম্মদ নূরুল হক রমজানের প্রথম তারাবিতে সিলেটে মুসল্লিদের ঢল রমজানে আবহাওয়া যেমন থাকবে সিলেটে?
৫৫

সিসিক নির্বাচন : ১৯০টি কেন্দ্রে ভোট দিবেন নগরবাসী

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৯ মে ২০২৩  

পৌরসভা থেকে ২০০২ সালে সিলেট সিটি কর্পোরেশন প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর সিলেটের সকল ওয়ার্ডে এবারই প্রথম হচ্ছে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) এর মাধ্যমে ভোট গ্রহণ। যদিও ২০১৮ সালের নির্বাচনে সিলেটের দুইটি ওয়ার্ডে হয়েছিল ইভিএম এ ভোট গ্রহণ। তবে বর্ধিত ওয়ার্ড নিয়ে এবার সবকটি ওয়ার্ডেই ভোটাররা ইভিএম এর মাধ্যমে ভোট দিবেন।

৭৯ দশমিক ৫০ বর্গকিলোমিটার আয়তনের এই মহানগরীতে ওয়ার্ড সংখ্যা ৪২টি। যেখানে মোট ভোটার সংখ্যা ৪ লাখ ৮৭ হাজার ৭৫৩ জন। এরমধ্যে পুরুষ ২ লাখ ৫৪ হাজার ৩৬৩, নারী ২ লাখ ৩৩ হাজার ৩৮৪ জন এবং তৃতীয় লিঙ্গ বা হিজরা ভোটর রয়েছেন ৬ জন।

এবারের সিসিক নির্বাচনে মোট কেন্দ্র থাকছে ১৯০টি যেখানে স্থায়ী ভোটকক্ষ থাকবে ১ হাজার ৩৬৭টি এবং অস্থায়ী ভোটকক্ষ থাকবে ৯৫ টি।

১৯০টি কেন্দ্রের মধ্যে ১নং ওয়ার্ডে কেন্দ্রের সংখ্যা ৪টি, যেখানে থাকবে ২৮টি স্থায়ী কক্ষ।

২নং ওয়ার্ডের ৩টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ২২টি।

৩নং ওয়ার্ডের ৫টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৫টি।

৪নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ২৯টি।

৫নং ওয়ার্ডের ৭টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৫০টি।

৬নং ওয়ার্ডের ৫টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৮টি এবং অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৫টি।

৭নং ওয়ার্ডের ৮টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৫৭টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৪টি।

৮নং ওয়ার্ডের ৮টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৫৮টি।

৯নং ওয়ার্ডের ৭টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৫২টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ২টি।

১০নং ওয়ার্ডের ৭টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৫১টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৫টি।

১১নং ওয়ার্ডের ৫টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৯টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৮টি।

১২নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩১টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৪টি।

১৩নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ২৮টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৪টি।

১৪নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ২৮টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৩টি।

১৫নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৩টি।

১৬নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ২৮টি।

১৭নং ওয়ার্ডের ৬টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৪৩টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ১টি।

১৮নং ওয়ার্ডের ৫টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৬টি।

১৯নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৭টি।

২০নং ওয়ার্ডের ৫টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৪টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ১টি।

২১নং ওয়ার্ডের ৫টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৭টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ১টি।

২২নং ওয়ার্ডের ৬টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৩টি।

২৩নং ওয়ার্ডের ৩টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ২০টি।

২৪নং ওয়ার্ডের ৫টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৪০টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ১৫টি।

২৫নং ওয়ার্ডের ৬টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৪২টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৬টি।

২৬নং ওয়ার্ডের ৬টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৪৪টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৭টি।

২৭নং ওয়ার্ডের ৫টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৫টি।

২৮নং ওয়ার্ডের ৩টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ১৯টি।

২৯নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ২১টি।

৩০নং ওয়ার্ডের ৩টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ১৯টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৩টি।

৩১নং ওয়ার্ডের ২টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ১৫টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ২টি।

৩২নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৫টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৫টি।

৩৩নং ওয়ার্ডের ৩টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ২৭টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৪টি।

৩৪নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ২৪টি।

৩৫নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ২৯টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ২টি।

৩৬নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৪টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৪টি।

৩৭নং ওয়ার্ডের ৩টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ২২টি।

৩৮নং ওয়ার্ডের ৪টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩০টি।

৩৯নং ওয়ার্ডের ৫টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ৩৮টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৪টি।

৪০নং ওয়ার্ডের ৩টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ১৬টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ২টি।

৪১নং ওয়ার্ডের ২টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ১৪টি, অস্থায়ী কক্ষ থাকবে ৩টি।

৪২নং ওয়ার্ডের ৩টি কেন্দ্রে স্থায়ী কক্ষের সংখ্যা ১৫টি।

নির্বাচন কমিশনের ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, আগামী ২১ জুন ইভিএমে এ সিটির মেয়রসহ ৪২টি ওয়ার্ডের সাধারণ কাউন্সিলর ও সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে ভোট অনুষ্ঠিত হবে। ২৩ মে ছিল মনোনয়নপত্র দাখিলের শেষ দিন। এতে মেয়র পদে ১১ প্রার্থী মনোনয়নপত্র দাখিল করেছেন। ২৫ মে বাছাইয়ে তাঁদের মধ্যে পাঁচজনের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা। তবে প্রার্থিতা ফিরে পেতে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) আপিল করেছেন তিন মেয়র প্রার্থী। 

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার