• বুধবার   ৩০ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৯

  • || ০৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
শান্তিগঞ্জে সুপেয় পানি পাবে ১৬০০ পরিবার নিউইয়র্কের পুলিশ অফিসার বড়লেখার তৌফিকের কৃতিত্ব শেষ ষোলোয় টিকে থাকতে রাতে মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা জঙ্গি ছিনতাই: আরও এক পুলিশ সদস্য বরখাস্ত সুনামগঞ্জ সীমান্ত থেকে দেড় কোটি টাকার তক্ষক জব্দ ঠান্ডায় হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে বাড়ছে শিশু রোগীর চাপ হবিগঞ্জে ভুলে ভরা প্রশ্নপত্রে বার্ষিক পরীক্ষা!
২৫

বিশ্বনাথে নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে মাটি উত্তোলন

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ১৫ নভেম্বর ২০২২  

সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার লামাকাজি ইউনিয়নের মৎসজীবি মতিউল ইসলাম (৪০)। দীর্ঘদিন থেকে পার্শবর্তী সুরমা নদী থেকে মৎস আরোহণ করেই চলে তার সংসার। কিন্তু কিছুদিন যাবত কিছু অসাধু ব্যবসায়ী সুরমা নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধ ভাবে মাটি উত্তোলনের ফলে তিনি আর মাছ আরোহণ করতে পারছেন না। বিধায় তাঁর সংসারের চাকা প্রায় অচল হয়ে পড়েছে।

এতো গেলো মতিউল ইসলামের কথা। এরকম এই এলাকায় শতাধিক পরিবার সুরমা নদী থেকে মাছ আরোহণ করে তাদের পরিবার চালায়। কিন্তু তাঁরা সবাই আজ একটি অসাধু ব্যবসায়ী সিন্টিকেটের কাছে জীম্মি হয়ে পড়েছে। মাছ ধরতে না পারায় তারা আজ কর্মহীন হয়ে পড়েছে।

এছাড়া, অসাধু ব্যবসায়ীরা সুরমা নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধ ভাবে মাটি উত্তোলনের ফলে হুমকির মুখে পড়েছে নদীর পাড়ে ২টি সরকারি আশ্রায়ন কেন্দ্রসহ নদীর উপর স্থাপিত ব্রিজ। নদী থেকে মাটি উত্তোলনের ফলে যেকোন সময় ধসে যেতে পারে সরকারি আশ্রায়ন কেন্দ্রের ঘর ও ব্রিজ।

মৎসজীবি মতিউল ইসলাম অভিযোগ করে বলেন, দীর্ঘদিন থেকে তাঁরা নদী থেকে মাছ ধরে জীবিকা নির্বাহ করছেন। কিন্তু সম্প্রতি ড্রেজার মেশিন দিয়ে মাটি তোলার ফলে তারা আর মাছ ধরতে পারছেন না। ফলে তিনি সহ এলাকার শতাধিক মৎসজীবি পরিবার কর্মহীন হয়ে দুর্বিসহ জীবন কাটাচ্ছেন।

এবিষয়ে, সম্প্রতি বিশ্বনাথ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সিলেটের জেলা প্রশাসক বরাবরে পৃথক অভিযোগ দিয়েছেন লামাকাজি ইউনিয়নের মির্জার গ্রামের মির্জারগাও আহরণ মৎস্যজীবি সংগঠনের সদস্যবৃন্দ।

এবিষয়ে বিশ্বনাথ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নুসরাত জাহান বলেন, এখানে একটি সরকারি প্রকল্পের জন্য মাটি তোলা হচ্ছে। এর বাইরে কেউ মাটি তোলে থাকলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার