• বৃহস্পতিবার   ২১ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৮

  • || ১৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
সুনামগঞ্জ পৌরসভার উদ্যোগে সম্প্রীতির সমাবেশ অনুষ্ঠিত সিলেটে করোনায় শনাক্তের হার ০.৮৩ সিলেট থেকে স্পেনে গিয়েই স্বামীকে অচেতন করে স্ত্রীর চম্পট! মধ্যরাতে এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে হঠাৎ তল্লাশি জুড়ীতে ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উদযাপিত সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি সমুন্নত রাখতে সিলেটে সৌহার্দ্য বৈঠক

একই ক্লাবে মালদিনিদের তিন প্রজন্মের গোল!

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১  

দাদা ও বাবা এসি মিলানের কিংবদন্তি হওয়ায় দানিয়েল মালদিনির কথা উঠলেই চলে আসে তাদের নাম। ফুটবল বিশ্বে এবার তার নিজের নামে পরিচিত হওয়ার পালা।

ইতালিয়ান ক্লাবটির হয়ে সেরি আয় প্রথমবার শুরুর একাদশে সুযোগ পাওয়ার উপলক্ষটা গোল করে রাঙালেন তিনি। তাতেই লেখা হলো নতুন ইতিহাস। প্রথমবারের মতো ইতালির শীর্ষ লিগে একই ক্লাবের হয়ে জালের দেখা পেলেন একই পরিবারের তিন প্রজন্ম!

স্পেৎসিয়ার বিপক্ষে শনিবারের ম্যাচটি ২-১ গোলে জেতে এসি মিলান। ৪৮তম মিনিটে সতীর্থের ক্রসে হেডে দলের প্রথম গোলটি করেন ১৯ বছর বয়সী দানিয়েল। তখন গ্যালারিতেই ছিলেন বাবা পাওলো মালদিনি। দুই হাত উঁচিয়ে উদযাপন করতে দেখা যায় বর্তমানে ক্লাবটির টেকনিক্যাল ডিরেক্টর পদে থাকা পাওলো মালদিনিকে।

১৯৫৪ থেকে ১৯৬৬ পর্যন্ত মিলানের দলটির হয়ে প্রায় সাড়ে তিনশ ম্যাচ খেলেছিলেন দানিয়েলের দাদা সেসারে মালদিনি। ইতালির প্রথম ক্লাব হিসেবে ১৯৬৩ সালে ইউরোপিয়ান কাপ জয়ী মিলানের অধিনায়ক ছিলেন তিনি।

আর খেলোয়াড়ী জীবনের পুরোটা সময় এসি মিলানে কাটিয়ে দেন ইতিহাসের সেরা ডিফেন্ডারদের একজন হিসেবে বিবেচিত পাওলো মালদিনি। বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে ক্লাবের হয়ে তিনি জেতেন পাঁচটি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ও সাতটি সেরি আসহ অনেক শিরোপা।

দাদা ও বাবার মতো দানিয়েল যদিও ডিফেন্ডার নন, তিনি খেলেন এটাকিং মিডফিল্ডার হিসেবে। সেরি আয় বাবা পাওলো মালদিনির সবশেষ গোলের ১৩ বছর ১৭৯ দিন পর জালের দেখা পেলেন দানিয়েল। ২০০৮ সালের মার্চে আতালান্তার বিপক্ষে সবশেষ গোলটি করেছিলেন পাওলো মালদিনি।

আর দাদা সেসারে সেরি আয় মিলানের হয়ে সবশেষ গোলটি করেছিলেন ১৯৬১ সালে, কাতানিয়ার বিপক্ষে।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার