• বৃহস্পতিবার   ২০ জানুয়ারি ২০২২ ||

  • মাঘ ৬ ১৪২৮

  • || ১৫ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

সর্বশেষ:
কুলাউড়া হাসপাতালের ৯ স্টাফ করোনায় আক্রান্ত স্বাস্থ্যকেন্দ্রের মেডিকেল অফিসার করোনা আক্রান্ত শিক্ষার্থীদের আন্দোলন নিয়ে যা বলছেন শাবির শিক্ষক-শিক্ষিকা জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় যুবকের মৃত্যু পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে নতুন বছরের শুভেচ্ছা ব্লিনকেনের শাবিঃ ‘টাকার ব্যাগ’ আর ‘পিস্তল’ রেখে উপাচার্যের কুশপুত্তলিকা
৫১

রিফ্রেশ করলে কম্পিউটারের কি সত্যিই গতি বাড়ে?

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ১৪ জানুয়ারি ২০২২  

আমাদের মধ্যে অনেকের ধারণা কম্পিউটার চালু করার পর যত বেশি রিফ্রেশ করা হবে ডিভাইসটি তত গতিশীল হবে।

উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমের ডেস্কটপ কিংবা ফাইল এক্সপ্লোরারের ফাঁকা অংশে মাউসের ডান বোতামে ক্লিক করলে একটি মেনু বেরিয়ে আসবে। সেখান থেকে রিফ্রেশে ক্লিক করা হয়। কেউ কেউ আবার শর্টকাট বোতাম হিসেবে কি-বোর্ডের ওপরের সারি থেকে এফ-ফাইব (F5) বোতামও চাপেন।

কিন্তু রিফ্রেশ করলে কম্পিউটারের গতি বাড়বে, সে ধারণা মোটেও সঠিক নয়।

তাহলে রিফ্রেশের আসল কাজটা কী?

রিফ্রেশের কাজটা পুরোপুরি ভিন্ন। এটা ভিজুয়াল ভুলত্রুটি মাফ করে, পারফরম্যান্সের না। মানে মনিটরে যা দেখানোর কথা, রিফ্রেশ করার পর সেটারই সংশোধিত রূপ দেখায়।

মনে করুন, আপনি ডেস্কটপ থেকে একটি ফাইল ডিলিট করেছেন। কিন্তু অবাক হয়ে দেখলেন, সেটি এখনো ডেস্কটপেই দেখাচ্ছে। অথচ ফাইলটি সেখানে থাকার কথা নয়, বড়জোর রিসাইকেল বিনে থাকতে পারে।

কম্পিউটারের গতি কোনো কারণে কমে গেলে অনেক সময় এমন সমস্যা দেখা দেয়। এমন অবস্থাতে আপনি রিফ্রেশ চাপলে ফাইলটি আর আগের জায়গায় না দেখিয়ে রিসাইকেল বিনে দেখাবে। আর আকার বেশি বড় হলে রিসাইকেল বিনে না গিয়ে স্থায়ীভাবে মুছে যাবে। অর্থাৎ রিফ্রেশ করলে যা দেখানোর কথা, সেটাই ঠিকঠাকভাবে দেখাবে। কম্পিউটারের মোটেও গতি বাড়াবে না।


এক্ষেত্রে রিফ্রেশ করার পর গতি বেড়েছে বলে মনে হয় কেন?

কম্পিউটারে যখন এক উইন্ডো থেকে আরেক উইন্ডোতে যাওয়া হয়, তখন র‍্যাম থেকে অপারেটিং সিস্টেমের পেজ ফাইলে ডেটা বিনিময় হয়। এতে এক থেকে দুই সেকেন্ড লাগতে পারে। তখন সঙ্গে সঙ্গে অন্য কোনো কমান্ড দিলে কম্পিউটারের গতি কমে গেছে বলে মনে হয়। আর ঠিক ওই সময়ে গতি বাড়ানোর জন্য আমরা রিফ্রেশ করে থাকি।

এ দিকে রিফ্রেশ করতে এক-দুই সেকেন্ড তো লেগেই যায়। ওই সময়ের মধ্যে কম্পিউটার তার গতি ফিরে পায়। অর্থাৎ আপনি যদি রিফ্রেশ না চেপে এমনিতেও খানিকটা সময় অপেক্ষা করেন, তবু একই ফল পাবেন।

রিফ্রেশ করলে অনেক সময় কম্পিউটারের গতি না বাড়িয়ে বরং কমিয়েও দিতে পারে। কেননা রিফ্রেশের কারণে ডেস্কটপের দৃশ্যমান অংশ ঠিকঠাক করতে সিপিইউর প্রসেসিং পাওয়ারের খানিকটা ব্যয় হয়। তাই আপনার সিপিইউ যদি অন্য কাজে ব্যস্ত থাকে, যদিও রিফ্রেশ করলে হিতে বিপরীতও হতে পারে।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার