• শনিবার   ২৩ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৮ ১৪২৮

  • || ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
সিলেটের আওয়ামী লীগ নেতা শমসের বক্স মারা গেছেন সহকারী শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে বড়লেখায় সম্প্রীতি সভা চার মাসেও হাকালুকিতে বৃক্ষ নিধন তদন্তের অগ্রগতি নেই দক্ষিণ সুরমার কলেজছাত্র রাহাত হত্যার ঘটনায় মামলা ‘আঁধার কেটে আলো আসবেই’ স্লােগানে সিলেটে মোমবা‌তি প্রজ্জ্বলন সিলেটের ‘শেখ হাসিনা শিশু পার্ক’ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন চিকিৎসার জন্য বাংলাদেশিদের আর বিদেশ যেতে হবে না: সিলেটে মোমেন

দক্ষিণ সুরমায় মোবাশ্বির ‘হত্যা’ : নারী গ্রেফতার 

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১  

সিলেটের দক্ষিণ সুরমায় বরইকান্দি ইউনিয়নের ধোপাঘাটে সিলামের সালিশ ব্যক্তিত্ব ও যুক্তরাজ্য বিএনপি নেতার ভাই আব্দুল হক মোবাশ্বিরকে (৫৯) হত্যার অভিযোগে এক নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ওই নারী মোবাশ্বিরের দ্বিতীয় স্ত্রী বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

মোছা. পান্না বেগম (১৯) নামের ওই নারীকে রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) বেলা আড়াইটায় দক্ষিণ সুরমার চান্দাই থেকে গ্রেফতার করে দক্ষিণ সুরমা থানাপুলিশ। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পরে তাকে আদালতে প্রেরণ করা হবে।

দক্ষিণ সুরমা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কামরুল হাসান তালুকদারের বরাত দিয়ে সিলেট মহানগর পুলিশের (এসএমপি) মুখপাত্র বি এম আশরাফ উল্যাহ তাহের এসব তথ্য জানিয়েছেন।

গ্রেফতারকৃত পান্না বেগম দক্ষিণ সুরমার চান্দাই মিলিবাড়ীর রবিউল আলমের মেয়ে।  

পুলিশ জানায়, শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টার থেকে বিকাল সাড়ে ৪ মধ্যে দক্ষিণ সুরমা থানাধীন ধোপাঘাটস্থ ময়ুরকুঞ্জ কমিউনিটি সেন্টারের পার্শ্ববর্তী আব্দুল হক মোবাশ্বিরের মালিকানাধীন হাউজিং প্রকল্পের দেওয়ালঘেরা টিনশেড ঘরে তাকে পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়। মোবাশ্বির দক্ষিণ সুরমা উপজেলার মোগলাবাজার থানার সিলাম শেখপাড়ার মৃত ফজলুল হকের ছেলে।     

মোবাশ্বিরকে না পেয়ে খোঁজাখুজির এক পর্যায়ে ঘটনাস্থল হাউজিং প্রকল্পের সবজি বাগান দেখাশোনার দায়িত্বে নিয়োজিত মো. জমির মিয়া (৪৯) আসরের নামাজের পর পর ওই স্থানে আসলে গেইট ভিতর থেকে লাগানো দেখেন। তখন জমির মিয়া গেইটের নিচ দিয়ে হাত ঢুকিয়ে সিটকিনি খুলে গেইটের ভিতরে প্রবেশ করে দেওয়ালঘেরা টিনশেড ঘরের ভিতর গিয়া দেখেন আব্দুল হক মোবাশ্বির ঘরের মেজেতে প্লাস্টিকের ত্রিপলের উপর শর্ট প্যান্ট পরিহিত অবস্থায় পড়ে আছেন। তার কোনো সাড়া-শব্দ না পেয়ে মোবাশ্বিরের ছোট ভাই মো. শামছুল হককে খবর দেন জমির মিয়া। শামছুল হক ঘটনাস্থল এসে তাঁর ভাইয়ের (মোবাশ্বির) মৃতদেহ ঘরের মেঝে পড়ে থাকতে দেখেন এবং স্থানীয় ইউনিয় পরিষদ চেয়ারম্যানের মাধ্যমে রাত ৮টার দিকে পুলিশকে খবর দেন। 

খবর পেয়ে দক্ষিণ সুরমা থানাপুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশের সুরতহাল তৈরির পর রাত সাড়ে ১০টার দিকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিলেট এম এ জি ওসমানী মেডিকেল কলেজ মর্গে প্রেরণ করে। লাশ উদ্ধারের সময় মোবাশ্বিরের মুখসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন দেখতে পায় পুলিশ।
 
এদিকে, লাশ উদ্ধারের পর প্রকৃত ঘটনা অনুসন্ধানে কাজ শুরু করে পুলিশ। পরে রোববার বেলা আড়াইটার দিকে মোবাশ্বির হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে মো. পান্না বেগমকে গ্রেফতার করা হয়। এর আগে মোবাশ্বিরের মৃত্যুর ঘটনায় বড় ভাই মো. মুহিবুল হক দক্ষিণ সুরমা থানায় মামলা (নং- ২৪) দায়ের করেন।

উল্লেখ্য, ‌‘হত্যা’র শিকার আব্দুল হক মোবাশ্বির সিলাম শেখপাড়ার মৃত ফজলুল হক কন্ট্রাক্টারের ছেলে। তিনি লন্ডন মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবেদ রাজা ও সিলেট জেলা যুব দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মরহুম তালাত আজিজের মেজো ভাই।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার