• শনিবার   ২৩ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৮ ১৪২৮

  • || ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
সিলেটের আওয়ামী লীগ নেতা শমসের বক্স মারা গেছেন সহকারী শিক্ষক সমিতির উদ্যোগে বড়লেখায় সম্প্রীতি সভা চার মাসেও হাকালুকিতে বৃক্ষ নিধন তদন্তের অগ্রগতি নেই দক্ষিণ সুরমার কলেজছাত্র রাহাত হত্যার ঘটনায় মামলা ‘আঁধার কেটে আলো আসবেই’ স্লােগানে সিলেটে মোমবা‌তি প্রজ্জ্বলন সিলেটের ‘শেখ হাসিনা শিশু পার্ক’ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন চিকিৎসার জন্য বাংলাদেশিদের আর বিদেশ যেতে হবে না: সিলেটে মোমেন

দুর্গার প্রতিমা গড়তে ব্যস্ত মৃৎ শিল্পীরা

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১  

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপুজা। আগামী ১১ অক্টোবর পঞ্চমী তিথিতে শারদীয় দুর্গাপূজার মূল আনুষ্ঠানিকতা শুরু হবে।

সে লক্ষ্যেই সারা দেশের মতো সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায়ও চলছে প্রতিমা গড়ার কাজ। উপজেলায় ৭টি ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে তালিকাভুক্ত ২৯টি মণ্ডপের জন্য নন্দন দেবী দুর্গার প্রতিমা তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা শিল্পীরা। ইতোমধ্যে শিল্পীদের দক্ষ হাতের ছোঁয়ায় পূর্ণরুপে ফোটে ওঠেছে দৃষ্টিনন্দন অধিকাংশ প্রতিমা।

দুর্গাপুজায় উপজেলার বিভিন্ন পুজামন্ডপ সংশ্লিষ্টরা বলছেন, প্রতি বছরের মতো এবারও ধর্মীয় প্রথা অনুযায়ী শারদীয় দুর্গোৎসবের আয়োজন চলবে। দেবীদুর্গা আসছেন অন্ধকার আচ্ছন্ন পৃথিবীকে আলোকিত করতে। ঢাক, ঢোল, শঙ্খধ্বনি আর উলুধ্বনি দিয়ে দেবীদুর্গাকে বরণ করে নেওয়ার অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছেন ভক্তরা। আর ব্যস্ত সময় পার করছেন কমর্রত মৃৎশিল্পীরা। প্রতি বছর আনন্দ উৎসবের মধ্য দিয়ে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকলেও করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবে সরকারিভাবে সামাজিক দূরত্ব বজায় ও স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে শারদীয় দুর্গোৎসব পালনে এবারও পুজার সেই পুরনো জাকজমক থাকবে অনেকটা অগোচরে।

উপজেলার বিভিন্ন পুজামন্ডপ ঘুরে দেখা যায়, কাদা-মাটি, বাঁশ, খড়, সুতলি দিয়ে শৈল্পিক ছোঁয়ায় তিলতিল করে গড়ে তোলা দেবী দুর্গার প্রতিমা তৈরিতে দিন-রাত ব্যস্ত সময় পার করছেন প্রতিমা কারিগররা। আয়োজক ও বক্তদের মাঝে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনা বিরাজ করছে।

উপজেলা সদরের সূর্য্যেরগাও গ্রামের দূর্গা মন্দিরে প্রতিমা তৈরি করতে ছাতক থেকে এসেছেন কারিগর কৃষ্ণ দাস ও শুভাস দাস চন্দ্র। তারা বলেন,প্রতিবছর এ সময় ১০-১২টি পুজামন্ডবে কাজ করে থাকি। এ বছর মাত্র পাঁচটি পুজামন্ডপে কাজ করছি এতে যে উপার্জন তা দিয়ে কোন রখমে চলতে হবে। অথছ, দূর্গা উৎসবকে গিরে আমাদের সকল আনন্দ আর উপার্জন থাকে বেশী। কিন্তু করোনা আমাদের সকল আনন্দ,আয়োজন ও কাজে স্থবিরতা এনে দিয়েছে। আমরা গত বছরের মত এবারও আর্থিক সংকটে পরেছি।

উপজেলা পুজা উদযাপন পরিষদ শুভাষ পুরকাস্থ জানান, করোনা ভাইরাসের কারণে এবারও স্বাস্থ্যবিধি মেনে পুজা উদযাপন করা হবে। এ বছর উপজেলায় ২৯টি পুজামন্ডবে দুর্গাপুজার আয়োজন চলছে। জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে এ উৎসব সম্পন্ন করতে সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

তাহিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল লতিফ তরফদার বলেন, দুর্গোৎসব উপলক্ষ্যে আইনশৃংখলা পরিস্থিতি খুবেই ভাল অবস্থানে রয়েছে। পুজামন্ডব গুলোতে কঠোর নিরাপত্তা থাকবে। কোথাও কোনো ধরনের বিশৃংখলা ঘটনা ঘটতে দেয়া হবে না।

তাহিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রায়হান কবির জানান, আসন্ন শারদীয় দুর্গাপুজা নির্বিঘ্নে অনুষ্ঠিত করার লক্ষ্যে সরকারী যে নিদের্শনা আসবে সে র্নিদেশনা মোতাবেক ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার