• শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৩ ১৪২৮

  • || ০৯ সফর ১৪৪৩

সর্বশেষ:
দোয়ারাবাজারে বিভিন্ন কর্মসূচি পরিদর্শনে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার অবশেষে শুরু হচ্ছে সিলেটের সেই দুই সড়কের সংস্কারকাজ করোনা: ফের মৃত্যুর মিছিলে সিলেটে সিলেট জেলা ছাত্রলীগের প্রথম সভাপতি ফয়জুল আর নেই

ওসমানীনগরে ব্যাংকের বুথে ডাকাতির দৃশ্য সিসি ক্যামেরায় ধরা

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১  

সিলেটের ওসমানীনগরে ব্যাংকের এটিএম বুথে ডাকাতির দৃশ্য ধরা পড়েছে ব্যাংকটির নিজস্ব সিটিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে।

এতে দেখা যায়, চারজন মুখোশধারী লোক এটিএম বুথে প্রবেশ করে নিরপত্তা কর্মীকে জিম্মি করে বুথের টাকা লুট করে নিয়ে যায়। ডাকাতদের তিনজনের মাথায় লাল কাপড় বাধা ও একজনের মাথায় ক্যাপ। সবার মুখই মাস্ক দিয়ে ঢাকা।
 
সিলেটের ওসমানীনগরে ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংক লিমিটেডের (ইউসিবিএল) এটিএম বুথে গত রোববার ভোরে এ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় রোববার রাতে মামলা দায়ের হলেও সোমবার দুপুর পর্যন্ত কাউকে  গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। টাকাও উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

ওসমানীনগর উপজেলার সাদিপুর ইউপির শেরপুরের নতুন বাজার এলাকায় ইউনুছ ম্যানশনের নিচ তলায় এটিএম বুথটির অবস্থান। ব্যাংক কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ডাকাতরা বুথ থেকে ২৪ লাখ ২৫ হাজার ৫শ’ টাকা লুট করে নিয়ে যায়।
এ ঘটনায় ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকের ম্যানেজার সৈয়দ আশরাফুল আমিন বাদি হয়ে গত রোববার রাতে ওসমানীনগর থানায় অজ্ঞাতনামা ৪ জনকে আসামি করে মামলা (নং-১৬) দায়ের করেন।

পুলিশ ও ব্যাংক কতৃপক্ষ সূত্রে জানা যায়, রোববার রোববার ভোর রাতে একই রংঙ্গের মোখোশ পরা ৪জনের একদল ডাকাত ইউনাইটেড কমার্শিয়াল ব্যাংকে ফার্স্ট ট্র্যাক এটিএম বুথে হানা দেয়। এ সময় ডাকাতরা বুথের নিরাপত্তাকর্মী উপজেলার সাদিপুর ইউপির পূর্ব তাজপুর গ্রামের মো. জাকারিয়াকে অস্ত্রের মুখে জিম্মি করে হাত মুখ বেঁধে ফেলে মারধর করে। পরে বুথের লকার ভেঙে ২৪ লাখ ২৫ হাজার ৫শ’ টাকা লুট করে পালিয়ে যায়। ঘটনার খবর পেয়ে সকালে ব্যাংক কর্তৃপক্ষ ওসমানীনগর থানা পুলিশ, সিআইডি, ডিবি পুলিশ, পিবিআই সহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

ইউনাইটেড কর্মাশিয়াল ব্যাংক শেরপুর শাখার ব্যবস্থাপক সৈয়দ আশরাফুল আমিন বলেন, টুপি ও মাস্ক পরিধান করা চার জনের একটি ডাকাতদল বুথে ঢুকে নিরাপত্তকর্মীকে জিম্মি করে বুথ ভেঙে টাকা লুট করে নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় আমি নিজে বাদি হয়ে ওসমানীনগর থানায় একটি মামলা দায়ের করেছি।

ওসমানীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল বণিক বলেন, এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। তবে পুলিশ অপরাধীদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় আনতে এবং টাকা উদ্ধারে পুলিশ কাজ করছে।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার