• বুধবার   ২০ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৪ ১৪২৮

  • || ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
প্রথমবার জাতীয়ভাবে পালিত হচ্ছে ‘শেখ রাসেল দিবস’ জুড়ীতে ইউপি নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দিলেন যারা আজ থেকে টিকা পাচ্ছেন শাবির সকল শিক্ষার্থী সিলেটের মন্দিরে হামলা ঠেকাতে রাত জেগে ছাত্রলীগের পাহারা হবিগঞ্জে ট্রাফিক পুলিশের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ, সড়ক অবরোধ বিয়ানীবাজারে ইয়াবাসহ নারী গ্রেপ্তার শেখ রাসেলের জন্মদিনে সিলেট জেলা আ. লীগের মিলাদ

শফি আহমদ চৌধুরীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ৬ সেপ্টেম্বর ২০২১  

সাবেক সংসদ সদস্য শফি আহমদ চৌধুরী তাঁর নির্বাচনী এলাকা দক্ষিণ সুরমা, ফেঞ্চুগঞ্জ ও বালাগঞ্জের সর্বস্তরের জনসাধারণের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।

রবিবার (৫ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন এবং এলাকার মানুষের সুখে-দুখে পাশে থাকবেন বলে জানান।

গত শনিবার অনুষ্ঠিত এই আসনের উপ-নির্বাচনে তাঁর সঙ্গে থাকা সব নেতা ও কর্মীদের কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, ১৯৮৬ সালে আমি রিক্সা প্রতীক নিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্ধিতা করে ১৫ দলের প্রার্থী মরহুম পীর হাবিবুর রহমানের সঙ্গে বিপুল ভোটে এগিয়ে ছিলাম। কিন্তু তৎকালীন এরশাদ সরকারের নির্দেশে মাত্র কয়েক’শ ভোটে পীর হাবিবকে বিজয়ী দেখানো হয়। এরপর থেকে সংসদ সদস্য না হয়েও ব্যক্তিগতভাবে এলাকার উন্নয়নে ভূমিকা রাখি। পরবর্তীতে ১৯৯৬ এবং ২০০১ সালে বিএনপির প্রার্থী হিসেবে বিপুল ভোটে এই আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হই। নির্বাচিত হওয়ার পর দক্ষিণ সুরমা উপজেলা বাস্তবায়নসহ এই অঞ্চলের মানুষের শিক্ষা-স্বাস্থ্য, যোগাযোগসহ জীবনমান উন্নয়নে কাজ করে গেছি।

শফি চৌধুরী বলেন, স্থানীয় জনসাধারণের চাপে এবারে উপ-নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করি। নির্বাচনে অংশগ্রহণের পর সাধারণ মানুষের স্বতস্ফুর্ত অংশ গ্রহণ আমাকে অনুপ্রাণিত করে। নির্বাচনী ক্যাম্পেইনে যেখানেই গেছি, সেখানেই হাজার হাজার মানুষের ব্যাপক সাড়া পেয়েছি। কিন্তু ভোটের ফলাফলে আমি হতবাঁক। এবারে ইভিএমে ভোট হওয়ায় অনেক কেন্দ্রে আমার ভোটাররা অভিযোগ করেন যে তাঁরা ফিঙ্গার দেওয়ার পর কে বা কারা তাদের ভোট কনফার্ম করে দেয়। যা সম্পূর্ন অনৈতিক কাজ।

তিনি আরও বলেন, এই আসনের বিএনপির নেতাকর্মীরা আমাকে কোনো প্রকার সহযোগিতা না করে উল্টো তাঁরা জাতীয় পার্টির প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছে। যা বিএনপির রাজনীতির সম্পূর্ন পরিপন্থি। জাতীয়তাবাদী আদর্শে বিশ্বাসী হয়ে আমি দীর্ঘদিন এই দলের পিছনে অর্থ, শ্রম ও সময় দিয়েছি। যার স্বাক্ষী এই অঞ্চলের মানুষ।

শফি চৌধুরী এই উপ-নির্বাচন তাঁর জীবনের শেষ নির্বাচন উল্লেখ করে বলেন, তিনি আর কখনো নির্বাচনে আসবেন না। তবে এলাকার মানুষের সুখে-দুখে, সামাজিক আচার অনুষ্ঠানে তিনি মানুষের পাশে থাকবেন।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার