• শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৩ ১৪২৮

  • || ০৯ সফর ১৪৪৩

সর্বশেষ:
দোয়ারাবাজারে বিভিন্ন কর্মসূচি পরিদর্শনে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার অবশেষে শুরু হচ্ছে সিলেটের সেই দুই সড়কের সংস্কারকাজ করোনা: ফের মৃত্যুর মিছিলে সিলেটে সিলেট জেলা ছাত্রলীগের প্রথম সভাপতি ফয়জুল আর নেই

গোয়াইনঘাটে জাল উত্তরাধিকারি সনদ বানিয়ে বাজার দখলের চেষ্টা

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৫ আগস্ট ২০২১  

সিলেটের গোয়াইনঘাটে জাল উত্তরাধিকারী সনদ দিয়ে পাঁচসেউতি বাজার দখলের চেষ্টা করছে একটি ভূমিখেকোচক্র। চক্রটি বাজারের ১৬ শতক ভুমি জবরদখল করতে বাজার কমিটির সদস্যদের বিরুদ্ধে হামলা-মামলা ও ভিত্তিহীন সংবাদ প্রচার করে আসছে। তাদের অপপ্রচারে বিভ্রান্তিকর পরিস্থিতে পড়েছেন বাজার পরিচালনা কমিটির সদস্যরা। ভূমিদস্যু চক্রটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন ভূয়া শিক্ষক ও এক কতিত মানবাধিকার কর্মী।

বুধবার সিলেট জেলা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে ভূমিদস্যূদের বিরুদ্ধে বাজার দখলের এই অভিযোগ করেন ব্যবসায়ী নেতারা।

সরকারের মালিকানাধীন বাজারের ভূমিরক্ষা স্থানীয়দের শান্তিতে ব্যবসা করতে চক্রটির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নিতে জোর দাবি জানান তারা।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য রাখেন পাঁচসেউতি বাজার পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো. বিলাল উদ্দিন।

লিখিত বক্তব্যে বিলাল বলেন, ‘আমরা ১৯৭৯ সাল থেকে দোকানপাট করে গোয়াইনঘাট উপজেলার পাঁচসেউতি বাজারে ব্যবসা ও বাজার পরিচালনা করে আসছি। ওই বাজারের ভূমির পরিচালক সাত মৌজার বাসিন্দা। ১৯৭৯ সালে উপজেলার ৪ পরগনার লোকজনের সমন্বয়ে এই বাজারটির যাত্রা শুরু হলে পররবর্তীতে ৭ মৌজার বাসিন্দারা বাজারটি পরিচালনার কাজ শুরু করেন। এরপর থেকে বাজারটি সরকারের মালিকানা ও তত্ত্বাবধানে চলে যায়। স্থানীয় লোকজন সরকারের কাছ থেকে নিলামে এনে কমিটির মাধ্যমে বাজারটি পচিালনা ও উন্নয়নমূলক কাজ করে আসছেন।

বাজারটি বর্তমানে জেলা সিলেট, থানা- গোয়াইনঘাট, মৌজা- পাঁচসেউতি বাজার, এস. এ. জে. এল. নং-২৯৩,এস. এ. খতিয়ান-৩৪, এস. এ. দাগ-৬৫,১১৮,১১৯ ও ১২০, পরিমান-১. ২৯ একর ভুমির উপর অবস্থিত।’

বিলাল বলেন, ‘মূলত এস.এ দাগ ও খতিয়ানের রেকর্ডকৃত এই ভূমির মালিক স্বত্ববান ও দখলদার ছিলেন কন্টাই বিবি নামের এক মহিলা। কন্টাই বিবি নিঃসন্তান অবস্থায় মারা যান এবং অন্যান্য উত্তরাধিকারীগন তাদের স্বত্ব বিক্রি করে দখল ত্যাগ করলে বাজারটি সরকারের নিয়ন্ত্রণে চলে যায়। আমরা কমিটির লোকজন সরকার থেকে নিলামে এনে বাজারটি ভোগ দখল করছি এবং এর উন্নয়ন করছি।’

সংবাদ সম্মেলনে ব্যবসায়ী নেতা বিলাল বলেন, দীর্ঘ ৪০ বছর থেকে আমরা পাঁচসেউতি বাজারে শান্তিতে ব্যবসা বাণিজ্য করে আসলেও সম্প্রতি একটি একটি ভূমিদসু্যু চক্র বাজারটি জবরদখলের চেষ্ঠা করছে। সম্প্রতি উপজেলার ৫নং পূর্ব আলীরগাঁও ইউনিয়ন পরিষদের প্যাডে উপজেলার আগফৌদ গ্রামের কাজিম উদ্দিনের নামে উত্তরাধিকারী জাল সনদ নিয়ে তাকে কন্টাই বিবির উত্তরাধিকারী সাজিয়ে বাজারের সাড়ে ১৬ শতক জমির উপর মালিকানা দাবি করেন কাজিম উদ্দিনের ছেলে আবুল ফয়ছল। তাকে সহযোগিতা করছেন ভূয়া মাদ্রাসা শিক্ষক জনৈক নজির আহমদ এবং ভূয়া সাংবাদিক ও মানবাধিকারকর্মী সালেহ রাজা। নজির আহমদ কোনদিন কোন স্কুল ও মাদ্রাসায় শিক্ষকতা করেননি এবং শিক্ষকতার ন্যুনতম যোগ্যতাও তার নেই। অথচ তিনি নিজেকে মাদ্রাসা শিক্ষক বলে দাবি করে আসছেন।

বিলাল আরও বলেন, বাজারের ১৬ শতক ভূমি রক্ষায় আমরা সাত মৌজার লোকজন এগিয়ে আসলে আমাদের বিরুদ্ধে মামলা হামলাসহ থানা ও কোর্টে মিথ্যে অভিযোগ দিয়ে ভিত্তিহীন সংবাদ প্রচার করা হচ্ছে। এমনকি সিলেটের পুলিশ সুপারসহ বিভিন্ন মহলে আমাদের বাজার কমিটির লোকজনের বিরুদ্ধে মিথ্যা ও সাজানো অভিযোগ দিয়ে হয়রানি করছেন।

সংবাদ সম্মেলনে বাজারের ভূমি রক্ষায় ভূমিদস্যূদের জালিয়াতি, হয়রানি ও অপপ্রচার বন্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহনের জোর দাবি ব্যবসায়ীরা।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন পাঁচসেউতি বাজার পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুশ শুকুর লাকি, উপদেষ্টা মখলিছুর রহমান ও উপদেষ্টা কাজী হারিছ।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার