• বুধবার   ৩০ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৯

  • || ০৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
শান্তিগঞ্জে সুপেয় পানি পাবে ১৬০০ পরিবার নিউইয়র্কের পুলিশ অফিসার বড়লেখার তৌফিকের কৃতিত্ব শেষ ষোলোয় টিকে থাকতে রাতে মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা জঙ্গি ছিনতাই: আরও এক পুলিশ সদস্য বরখাস্ত সুনামগঞ্জ সীমান্ত থেকে দেড় কোটি টাকার তক্ষক জব্দ ঠান্ডায় হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে বাড়ছে শিশু রোগীর চাপ হবিগঞ্জে ভুলে ভরা প্রশ্নপত্রে বার্ষিক পরীক্ষা!
৩১

কমলা ছুড়ে যুদ্ধ করে যে দেশের মানুষ!

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২২ নভেম্বর ২০২২  

যুদ্ধ করতে ব্যবহার করা হয় বিভিন্ন ধরনের অস্ত্র-শস্ত্র! তবে কখনো কি শুনেছেন, কমলা ছুড়ে যুদ্ধ করার উদ্ভট পদ্ধতির কথা! আপনিও চাইলে এই যুদ্ধে অংশ নিতে পারবেন। তবে এজন্য আপনাকে যেতে হবে ইতালিতে।

জানলে অবাক হবেন, কমলা ছুড়ে যুদ্ধ করার বিষয়টি আসলে উৎসব হিসেবে পালিত হয় ইতালিতে। ১৮০৮ সাল থেকে ইতালির ইভরিয়াতে এই কার্নিভাল পালিত হয়। যেখানে কমলা ছোড়াছুড়ি করা হয়। এই উৎসব বড় ক্যাথলিক সম্প্রদায়ের দেশগুলোতে পালিত হয় বলে জানা যায়।

এই উৎসবের সময় ইতালির রিও ডি জেনিরো থেকে রোম পর্যন্ত উৎসবে অংশ নেওয়া মানুষেরা কমলা খেতে খেতে রাস্তায় নামেন। এ সময় কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়। রাতে কার্নিভালের অংশ হিসেবে ‘ফ্যাট টিউডে’ বা ‘মার্ডি গ্রাস’ নামক পার্টি করা হয়।

জানা যায়, এই উৎসব একটানা তিনদিন উদযাপিত হয়। ক্যাথলিক সম্প্রদায়ের নারী-পুরুষ ও শিশুরা এই উৎসবে যোগদান করে কমলা যুদ্ধে অংশ নেন। এই লড়াইয়ের উত্সটি কিছুটা অস্পষ্ট, তবে জানা যায় এটি মধ্যযুগীয় বিদ্রোহের সময় প্রচলন ঘটে।

ইতিহাস মতে, অরেঞ্জ বা কমলার যুদ্ধটি ১৯৪৭ সাল থেকে প্রতিবছর ইভরিয়ায় পালিত হয়ে আসছে। কমলা যুদ্ধে অংশগ্রহণকারীরা ৯ দলে বিভক্ত হন। তারা পায়ে হেঁটে হেঁটে কমলা ছোড়াছুড়িতে অংশ নেন।

এই যুদ্ধ আবেগ ও সংহতির মিশ্রণ। প্রতিদ্বন্দ্বীদের সঙ্গে হাত মেলানো, একে অপরের প্রতি শ্রদ্ধা প্রদর্শন, একে অপরের দক্ষতা ও সাহসকে স্বীকৃতি দেওয়াই হলো এই উৎসবের মূল উদ্দেশ্য।

এই উৎসবে ইভরিয়ার ছোট্ট শহরে ৭০০০ এরও বেশি মানুষ একসঙ্গে পায়ে পা মিলিয়ে শহরের রাস্তায় হাঁটেন ও কশরা নিক্ষেপ করেন একে অপরের গায়ে। এই যুদ্ধে ৬০০ টনেরও বেশি কমলা নিক্ষেপ করা হয়, যা ৪.২ মিলিয়ন কমলার সমান।

২০১৮ সালে ইভরিয়া ‘২০ শতকের শিল্প শহর’ হিসেবে ইউনেস্কো কর্তৃক বিশ্ব ঐতিহ্যবাহী স্থান হিসেবে তালিকাভুক্ত হয়েছে। কমলা যুদ্ধ এই শহরের অনেক স্কোয়ার ও রাস্তায় অনুষ্ঠিত হয়।

সর্বশেষ কমলা যুদ্ধ উৎসবটি পালিত হয়েছে ২০২০ সালের ২৩-২৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। ২০২১ ও ২০২২ সালে কোভিড বিধিনিষেধের কারণে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হয়নি।

তবে ২০২৩ সালে এই উৎসব আরও জাকজমকতার মধ্য দিয়ে পালিত হবে বলে আশা করছেন ইভরিয়াবাসী। জানা গেছে, আগামী বছর এই উৎসব ফেব্রুয়ারির ১৯-২১ তারিখ পর্যন্ত পালিত হতে পারে।

আপনিও চাইলে এই উৎসব নিজ চোখে দেখতে পারে সেখানে গিয়ে। দর্শকদের জন্য এই উৎসবে প্রবেশ ফি ১০ ইউরো বা ১১ মার্কিন ডলার (১২ বছর বয়স পর্যন্ত শিশুদের জন্য বিনামূল্য)। তবে সোমবার ও মঙ্গলবার সবাই বিনামূল্যে কমলা যুদ্ধ উৎসব দেখতে পারবেন।

তবে যারা এই উৎসবে অংশ নিতে চান তাদের গুণতে হবে ৯০-১১০ ইউরো। এই বাজেটের মধ্যেই উৎসবের ৩ দিনের খাবার ও কমলাও অন্তর্ভুক্ত থাকবে।

সূত্র: ব্যাক প্যাকার্স ইন দ্য ওয়ার্ল্ড

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার