• সোমবার   ৩০ জানুয়ারি ২০২৩ ||

  • মাঘ ১৬ ১৪২৯

  • || ০৭ রজব ১৪৪৪

সর্বশেষ:
শ্রীমঙ্গলে অগ্নিকাণ্ডে ক্ষতিগ্রস্তদের মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ বাংলার মানুষের কথা ভেবেই দেশে এসেছি, পালাতে নয়: প্রধানমন্ত্রী মৌলভীবাজারে বিশ্ব কুষ্ঠ দিবস পালিত সিলেটে ভারতীয় চোরাই চিনিসহ কারবারি গ্রেফতার শাবিপ্রবিতে শূন্য আসন পূরণে ফের ডাকা হবে শিক্ষার্থী হবিগঞ্জে দুদকের মামলায় ৩ কর্মকর্তা-কর্মচারী কারাগারে এই সরকারের আমলে মানুষ বিচার পেয়েছে: স্পিকার
২৫

রাবিতে মোবাইল চোরের মোটরসাইকেল পুড়িয়ে দিলেন শিক্ষার্থীরা

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৩ জানুয়ারি ২০২৩  

মোবাইল ফোন চুরি করে পালানোর সময় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) দুই চোরকে হাতেনাতে আটক করেছেন শিক্ষার্থীরা। রোববার (২২ জানুয়ারি) রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাদারবক্স হলের পাশে এ ঘটনা ঘটে। 

আটক দুই চোর হলেন- রাজশাহীর তেরোখাদিয়া ডাবতলা এলাকার শাকিল উদ্দিনের ছেলে শাহিন আহমেদ ধ্রুব (২০)। তিনি রাজশাহীর কোর্ট স্টেশনের রবিউল ইসলাম কালুর ছেলে মো. ফয়সাল (২০)। 

পরে শিক্ষার্থীরা জড়ো হয়ে তাদেরকে মারধর করেন। মারধর শেষে দুজনকে শহীদ জিয়াউর রহমান হলের অতিথি কক্ষে আটকে রাখা হয়। এ সময় মোবাইল ফোন চোরদের সঙ্গে থাকা মোটরসাইকেলটিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের হবিবুর রহমান মাঠে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। পরে তাদেরকে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রসাশনের কাছে সোপর্দ করা হয়।

এদিকে প্রক্টরিয়াল বডি তাদেরকে উদ্ধার করে প্রক্টর অফিসে নিয়ে যায়। ১ ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদেরকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। 

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঘটনাস্থলে থাকা রাজু নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, মোবাইল ফোন নিয়ে পালানোর সময় আমরা কয়েকজন তাদেরকে হাতেনাতে ধরি। পরে শিক্ষার্থীরা এক হয়ে শহীদ জিয়াউর রহমান হলে তাদের বন্দী করে রাখি। তারা আজ প্রথম নয় বিভিন্ন হল থেকে অনেকের মোবাইল ফোন চুরি করেছে। তাদেরকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সব ফোন চুরির তথ্য বের হয়ে আসবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক আসাবুল হক বলেন, মোবাইল ফোন চুরি করে পালানোর সময় শিক্ষার্থীরা দুজনকে আটক করে। খবর পেয়ে শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আমরা তাদেরকে উদ্ধার করে প্রক্টর দপ্তরে নিয়ে আসি এবং জিজ্ঞাসাবাদ করি। পরে তাদেরকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে।

মতিহার থানা পুলিশের পরিদর্শক হাফিজুর রহমান বলেন, আসামি আমাদের হেফাজতে আছে তবে এখনো কোনো মামলা হয়নি। মামলা হলে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার