• শনিবার   ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১ ||

  • আশ্বিন ৩ ১৪২৮

  • || ০৯ সফর ১৪৪৩

সর্বশেষ:
দোয়ারাবাজারে বিভিন্ন কর্মসূচি পরিদর্শনে অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার অবশেষে শুরু হচ্ছে সিলেটের সেই দুই সড়কের সংস্কারকাজ করোনা: ফের মৃত্যুর মিছিলে সিলেটে সিলেট জেলা ছাত্রলীগের প্রথম সভাপতি ফয়জুল আর নেই

হাওরে নববধূ গণধর্ষণ, হবিগঞ্জের এক আসামির স্বীকারোক্তি

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ৪ সেপ্টেম্বর ২০২১  

হাওরে বেড়াতে যাওয়া স্বামী-স্ত্রীকে নির্যাতনের ঘৃণ্য নজির দেখা গিয়েছে হবিগঞ্জে। স্বামীকে মারধর করে আটকে রেখে নববধূকে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করেছিল একদল বখাটে। ওই ঘটনায় মিঠু মিয়া (২১) নামের  এক আসামি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন।

শুক্রবার (৩ সেপ্টেম্বর) বিকেলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সুলতান উদ্দিন প্রধান তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন।এ ঘটনায় গ্রেফতার অপর দুই আসামি উপজেলা ছাত্রলীগের সদস্য সোলায়মান রণি ও শুভ মিয়ার পাঁচ দিন করে রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ।

লাখাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুল ইসলাম বলেন, গ্রেফতার মিঠু মিয়া ইতোমধ্যে পুলিশের কাছে নিজের দোষ স্বীকার করেছেন। শুক্রবার বিকেলে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে তার জবানবন্দি রেকর্ড করেন। পলাতক আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২৫ আগস্ট বাড়ির পাশের হাওরে নৌকাভ্রমণে যান নবদম্পতি। আরেকটি নৌকায় করে কয়েকজন যুবক তাদের নৌকা গতিরোধ করেন। পরে তাদের নৌকায় এসে তাকে মারধর করে আটকে রেখে স্ত্রীকে তুলে নিয়ে ধর্ষণ করেন। এসময় ধর্ষণের ভিডিও ধারণে করে কাউকে না জানাতে হুমকি দিয়ে তাদের ছেড়ে দেন।

মামলায় মোড়াকড়ি গ্রামের খোকন মিয়ার ছেলে মুছা মিয়া (২৬), ইব্রাহীম মিয়ার ছেলে মিঠু মিয়া (২১), পাতা মিয়ার ছেলে হৃদয় মিয়া (২২), বকুল মিয়ার ছেলে সুজাত মিয়া (২৩), মিজান মিয়ার ছেলে জুয়েল মিয়া (২৫), ইকবাল হোসেনের ছেলে মুড়াকড়ি ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা সোলায়মান রনি (২২), ওয়াহাব আলীর ছেলে মুছা মিয়া (২০) ও রুকু মিয়ার ছেলে শুভ মিয়াকে (১৯) আসামি করা হয়েছে।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার