• বুধবার   ২০ অক্টোবর ২০২১ ||

  • কার্তিক ৪ ১৪২৮

  • || ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
প্রথমবার জাতীয়ভাবে পালিত হচ্ছে ‘শেখ রাসেল দিবস’ জুড়ীতে ইউপি নির্বাচনে মনোনয়ন জমা দিলেন যারা আজ থেকে টিকা পাচ্ছেন শাবির সকল শিক্ষার্থী সিলেটের মন্দিরে হামলা ঠেকাতে রাত জেগে ছাত্রলীগের পাহারা হবিগঞ্জে ট্রাফিক পুলিশের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগ, সড়ক অবরোধ বিয়ানীবাজারে ইয়াবাসহ নারী গ্রেপ্তার শেখ রাসেলের জন্মদিনে সিলেট জেলা আ. লীগের মিলাদ

সে শহীদুল ভাইয়ের ওয়াইফ, ওই নারী প্রসঙ্গে মামুনুল

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ৪ এপ্রিল ২০২১  

নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে রয়্যাল রিসোর্টে নারী নিয়ে অবরুদ্ধ হওয়ার পর নানা ঘটনাপ্রবাহের মধ্যে একটি মোবাইল ফোনে ৫৮ সেকেন্ডে কথোপকথনের একটি অডিও ক্লিপ ছড়িয়েছে।

একটি নারী কণ্ঠ এবং একটি পুরুষ কণ্ঠ কথা বলছিলেন। পুরুষের গলার স্বর হুবহু মামুনুল হকের মতোই।

শনিবার দুপুরের পর মামুনুলকে নারায়ণগঞ্জের রিসোর্টটিতে স্থানীয়রা অবরুদ্ধ করার পর তিনি ও সেই নারী যে বক্তব্য দিয়েছেন, মোবাইল ফোনের কথোপকথনের বক্তব্য পুরোপুরি বিপরীত।

মামুনুল স্থানীয়দের প্রশ্নের মুখে দাবি করেন, সেই নারী তার দ্বিতীয় স্ত্রী, দুই বছর আগে তারা বিয়ে করেছেন।

পরে সেই নারীকে জিজ্ঞাসাবাদ করার আরও একটি ভিডিও ভাইরাল হয়, সেখানে সেই নারীও দাবি করেছেন তিনি মামুনুলের দ্বিতীয় স্ত্রী।

তবে ওই নারীর নাম কী- সে নিয়ে প্রশ্ন উঠে দুই ধরনের বক্তব্যের কারণে। মামুনুল দাবি করেন, সেই নারীর নাম আমিনা তাইয়্যেবা। তবে সেই নারী নিজের নাম বলেন জান্নাত আরা (বাকিটা অস্পষ্ট)।

আবার মামুনুল দাবি করেছেন, তার শ্বশুর বাড়ি খুলনায়। শ্বশুরের নাম জাহিদুল ইসলাম। তবে সেই নারী দাবি করেছেন, তার বাবার নাম অলিয়র রহমান, বাড়ি ফদিরপুরের আলফাডাঙ্গায়। অবশ্য আগের মুহূর্তে তিনি বাড়ি একই জেলার ভাঙ্গা উপজেলা বলেও জানিয়েছেন।

এর মধ্যে অন্য একটি নারী কণ্ঠের সঙ্গে মামুনুলের কণ্ঠের অডিও রেকর্ডটি ভাইরাল হয়, তা শুনলে এটা স্পষ্ট যে, সোনারগাঁওয়ের ঘটনাবলীর ব্যাখ্যা দিচ্ছেন পুরুষ কণ্ঠটি।

কথোপকথনটা এমন:

-আসসালামু আলাইকুম (মানুমুলের কণ্ঠস্বর)

-ওয়ালাইকুম আস সালাম ওয়া রহমাতুল্লাহ। (নারী কণ্ঠ)

-পুরা বিষয়টা আমি তোমাকে সামনে আইসা বলব।…এই মহিলা যে ছিল সাথে সে আমাদের শহিদুল ইসলাম ভাইয়ের ওয়াইফ। বুঝছ? (মানুমুলের কণ্ঠস্বর)

‘তুমি একটা ওখানে অবস্থা এমন তৈরি হয়ে গেছে ওখানে ওই কথা বলা ছাড়া ওখানে ওরা ই করে ফেলছিল আমাকে, বুঝছ?’ (মানুমুলের কণ্ঠস্বর)

-আচ্ছা, বাসায় আসেন তারপরে কথা যা বলার হবে। (নারী কণ্ঠস্বর)

‘বলুম তো, তুমি বিষয়টা অন্যান্য কথা অন্যদেরকে বলতে হইব। পরিস্থিতিডা এ রকম হয়া গেছে। এই জন্য তুমি আবার মাঝখান দিয়া অন্য কিছু মনে কইর না। (মানুমুলের কণ্ঠস্বর)

-তোমাকে কেউ জিজ্ঞাস করলে তুমি বইল যে, আমি সব সব জানি। এই রকম কিছু একটা বইল। (মানুমুলের কণ্ঠস্বর)

-ঠিক আছে। (নারী কণ্ঠস্বর)

আচ্ছা। (মানুমুলের কণ্ঠস্বর)

স্ত্রীকে নিয়ে মামুনুল হক থাকেন মোহাম্মদপুরের কাদেরাবাদ হাউজিং এর এক নম্বর সড়কে একটি বাসায়। তার চারটি ছেলে।

রাত আটটার দিকে সেই বাসায় যাওয়ার পর নিরাপত্তা কর্মী ইকবাল হোসেন বলেন, মামুনুল হকের পরিবারের কেউ এখন বাসায় নেই।

তিনি জানান, মামুনুল হক বাসা থেকে বের হয়েছেন সকাল নয়টার দিকে। আর তার স্ত্রী ও সন্তানরা বের হন বিকালের দিকে। তারা কোথায় যাচ্ছেন, সেটা বলে যাননি।

মামুনুল হকের স্ত্রীর মোবাইল নম্বর পাওয়া না গেলেও তার বড় ছেলের একটি নম্বর পাওয়া গেছে, যেটিতে কল করলে বন্ধ পাওয়া যায়।

মামুনুলের আর কোনো স্ত্রী আছে কি না, এমন প্রশ্নে তার বাড়ির নিরাপত্তারক্ষী ইকবাল হোসেন কিছু বলতে পারেননি।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার