• সোমবার   ২৭ জুন ২০২২ ||

  • আষাঢ় ১৩ ১৪২৯

  • || ২৬ জ্বিলকদ ১৪৪৩

সর্বশেষ:
মঙ্গলবার সিলেটের যেসব এলাকায় বিদ্যুৎ থাকবে না ওসমানীনগরে ২শ মিটার অবৈধ কারেন্ট জাল পুড়িয়ে বিনষ্ট "প্রধানমন্ত্রীর দক্ষ ব্যবস্থাপনায় কেউ না খেয়ে মারা যায়নি" বন্যায় সিলেটে ১২ কোটি টাকার প্রাণিসম্পদের ক্ষতি প্রাকৃতিক দুর্যোগে সিলেটে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৫২ হবিগঞ্জে নদীর পানি কমেছে, উন্নতি নেই হাওরাঞ্চলে হেলিকপ্টারে করে সিলেটের বন্যা পর্যবেক্ষণ করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী
২১

কাজের মেয়েকে নির্যাতন, গৃহকর্ত্রী আটক

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৭ মে ২০২২  

সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার সয়াধানগড়া মধ্যপাড়া গ্রামে মোছা. লিপি খাতুন (১১) নামে এক কাজের মেয়েকে নির্যাতনের অভিযোগে জুথি খাতুন নামে গৃহকর্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার (২৭ মে) দুপুরে সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার সয়াধানগড়া মধ্যপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

মোছা. লিপি খাতুন কুড়িগ্রাম জেলার কচাকাটা উপজেলার পূর্বকেদার গ্রামের বাচ্চু মিয়া ও আমিনা খাতুনের মেয়ে। আটক জুথি খাতুন সিরাজগঞ্জ পৌর এলাকার সয়াধানগড়া মধ্যপাড়া গ্রামের তারেক গোলামের স্ত্রী ও ব্যাংকার মো. আলি আজাহারের ছেলের বউ।

এলাকাবাসী জানায়, মৃত হযরত আলীর ছেলে ব্যাংকার মো. আলি আজাহারের বাড়িতে মোছা. লিপি খাতুন (তিন) বৎসর যাবৎ বাসায় কাজ করে আসছে। চুন থেকে পান খসলেই শিশুটিকে নির্যাতন করতেন গৃহকর্ত্রী জুথি খাতুন। যে কাজ বয়স্ক মানুষকে দিয়ে করানো উচিত, তাই চাপিয়ে দেওয়া হতো লিপির ওপর। তবু রেহাই পায়নি মেয়েটি। এলাকাবাসী এ ঘটনাটি পুলিশকে জানালে তারা লিপিকে উদ্ধার করে।

মোছা. লিপি জানান, বিভিন্ন সময়ে লাঠি, তরকারি নারার হাতল, গরম ইস্ত্রি দিয়ে ছ্যাক ও কিল ঘুষি মারে। আমি কাউকে কিছুই বলতে পারি না। কাউকে কিছু বললে আমাকে নানাভাবে হুমকি দিতো খালাআম্মা।

ভুক্তভোগীর বড় বোন মোহসিনা সুমি বলেন, আমার বোন কোনো ভুল হলেই মারধর করতো। কয়েকদিন আগে আমার বোনকে টয়লেটে আটকে রেখে নির্যাতন করে। কিছু হলেই নির্যাতন চালাতো। আমি পাসের একটি বাড়িতে কাজ করতাম। কিন্তু আমাদের সাথে দেখা করতে দিত না। আমরা দেখা করতে আসলে ভেতরে ঢুকতে দিত না। নির্যাতনের কথা না বলার জন্য ভয় দেখানো হতো। এলাকাবাসীর মুখে শুনতে পেরে আমি এখানে এসেছি। পরে এলাকাবাসী পুলিশকে খবর দিলে শুক্রবার পুলিশ লিপিকে উদ্ধার করে।

সিরাজগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) তদন্ত মো: সাজ্জাদ হোসেন জানান, ইতিমধ্যে নির্যাতনের শিকার মেয়েটিকে পুলিশ উদ্ধার করে ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

তিনি আরও জানান, মেয়েটির শরীরে নির্যাতনের চিহ্ন পাওয়া গেছে। নির্যাতিত শিশুটির পরিবার থানায় অভিযোগ করেছে। আর এ অভিযোগে জুথি খাতুন নামে গৃহকর্ত্রীকে আটক করা হয়েছে। বিষয়টি আরও ভালোভাবে খতিয়ে দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার