• রোববার   ২৯ মে ২০২২ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ১৫ ১৪২৯

  • || ২৬ শাওয়াল ১৪৪৩

সর্বশেষ:
নেই বৈধ কাগজ, বন্ধ ৫ টি ডায়াগনস্টিক সেন্টার সরকারের খাদ্য সহায়তা পেল সিলেটের ১৩ হাজার পরিবার শাহজালাল মাজারে ওরস উপলক্ষে ‘লাকড়ি তোড়া’ উৎসব ১২ ঘণ্টায় ৭ নবজাতকের জন্ম! জাফলং গিলছে বালুখেকোরা, অভিযান-জরিমানা সেমিফাইনালে মাধবপুর বালিকা দল
২০৭

‘২০৪১ পর্যন্ত তো আমি থাকব না, উন্নয়নের কাঠামো দিয়ে গেলাম’

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ৫ জানুয়ারি ২০২২  

‘২০৪১ সাল পর্যন্ত তো আমি থাকব না, বাঁচবও না। কিন্তু একটি কাঠামো দিয়ে গেলাম। ৪১-এর বাংলাদেশ, যে উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ, সেই বাংলাদেশের সৈনিক হিসেবে নিজেদের এখন থেকে প্রস্তুতি নিতে হবে।’

বাংলাদেশ ছাত্রলীগের ৭৪তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর আলোচনায় যোগ দিয়ে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রাজধানীর ফার্মগেটে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে বুধবার (৫ জানুয়ারি) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন তিনি।

উন্নত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গঠনে ছাত্রলীগের প্রতিটি কর্মীকে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ধারণ করে গড়ে ওঠার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। সতর্ক করেছেন, লোভের ফাঁদে পড়ে কেউ যেন পিছলে না যায়।

তিনি বলেন, ‘যারা একদিন বাংলাদেশের স্বাধীনতা নিয়ে ব্যঙ্গ করেছিল, বলেছিল- স্বাধীন হয়ে বাংলাদেশ কী করবে, একটা বাস্কেট কেস হবে, আমার লক্ষ্য হচ্ছে সেই দেশে দারিদ্র্যের যে হার আছে তার থেকে যদি এক পার্সেন্টও কম হয়, তা এক পার্সেন্ট কম হলেও আমি বাংলাদেশ থেকে দারিদ্র্যের হার কমাব। এটাই আমার লক্ষ্য, এটা আমি দেখাতে চাই, হ্যাঁ এটা আমি পারি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘অনেক চক্রান্ত-ষড়যন্ত্র, এগুলো আমি মাথায়ও রাখি না, বিভ্রান্তও না। কারণ সারা জীবনই দেখেছি এগুলো হচ্ছে, হবেই। কিন্তু একটি আদর্শ নিয়ে চলতে গেলে, একটি লক্ষ্য স্থির করে চললে আর বাংলাদেশের তৃণমূলের, সাধারণ মানুষের ভাগ্য পরিবর্তন করতে গেলে, যারা ওপরে থেকে বেশি বেশি খায়, বেশি বেশি পায়, তাদের তো একটু দুঃখ থাকেই।

শিক্ষা, শান্তি, প্রগতি- ছাত্রলীগের এই মূলনীতি মেনে সবাইকে পড়াশোনার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আমি কারও নাম বলব না। একটু বলতে চাই। অল্পশিক্ষিত বা স্বশিক্ষিত বা অশিক্ষিত নেতৃত্ব একটি দেশকে ধ্বংসের দিকে নিয়ে যায়। আজকে সেই ধ্বংসস্তূপ থেকে একটি দেশকে আমরা উন্নয়নশীল দেশে উন্নীত করেছি।’

ছাত্রলীগের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘এখনও যদি নিজের গ্রামে ছুটিতে বাড়িতে গিয়ে নিজের গ্রামে কোনো মানুষ যদি নিরক্ষর থাকে তাদের সাক্ষরতার ব্যবস্থা করা, ছোট ছোট বাচ্চাদের ভলান্টারি শিক্ষা দিতে হবে।’

‘অহেতুক অর্থের পেছনে না ছুটে মানুষের জন্য কাজ করা, একজন রাজনৈতিক নেতার কাজ। সেটি মাথায় রাখতে হবে। মহান অর্জনের জন্য আত্মত্যাগ দরকার।’

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার