• বুধবার   ৩০ নভেম্বর ২০২২ ||

  • অগ্রাহায়ণ ১৬ ১৪২৯

  • || ০৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

সর্বশেষ:
শান্তিগঞ্জে সুপেয় পানি পাবে ১৬০০ পরিবার নিউইয়র্কের পুলিশ অফিসার বড়লেখার তৌফিকের কৃতিত্ব শেষ ষোলোয় টিকে থাকতে রাতে মাঠে নামছে আর্জেন্টিনা জঙ্গি ছিনতাই: আরও এক পুলিশ সদস্য বরখাস্ত সুনামগঞ্জ সীমান্ত থেকে দেড় কোটি টাকার তক্ষক জব্দ ঠান্ডায় হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে বাড়ছে শিশু রোগীর চাপ হবিগঞ্জে ভুলে ভরা প্রশ্নপত্রে বার্ষিক পরীক্ষা!
২৪

শান্তিগঞ্জে আমনের বাম্পার ফলন, খুশি কৃষক

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৪ নভেম্বর ২০২২  

ওমা অঘ্রাণে তোর ভরা ক্ষেতে কি দেখেছি মধুর হাসি’-বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথের লেখা আমাদের জাতীয় সঙ্গীতের এ অংশটুকুর বাস্তবতার পুরোপুরি দেখা মেলে, যদি কৃষকের পাশে ধান ক্ষেতের খুব কাছাকাছি যাওয়া যায়। বিশেষ করে এই অগ্রহায়ন মাসের শুরুতে নবান্নের আমেজ প্রকৃতিতে থাকতে থাকতে। সুনামগঞ্জের শান্তিগঞ্জ উপজেলার মাঠজুড়ে কৃষকের আবাদ করা আমন ধান ক্ষেতের এমন দৃশ্য সত্যিই মুখে হাসি ফোাঁচ্ছে কৃষকের। অগ্রহায়নের ঝলমলে আকাশ। মাঠে মাঠে কৃষকের সোনালী স্বপ্ন দুলছে। বাতাসে হিমগন্ধে শীতের মাঠজুড়ে সোনারঙা ধানের ছড়াছড়ি। আমন ধানের চনমনে সুগন্ধে মাতোয়ারা চারিদিক। মাতোয়ারা কিষাণ-কিষাণী।

শান্তিগঞ্জ উপজেলার কৃষক এখন ঘাম ঝরানো স্বপ্নের ফসল ঘরে তুলতে ব্যস্ত। কোমর বেঁধে কৃষক ও কৃষি শ্রমিক ধান গাছের গোড়ায় চালাচ্ছে কাস্তে। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় নির্বিঘ্নে ধান কাঁটা মাড়াই ও শুকানোর কাজ করতে পারছেন কৃষক। এবার ধানের দাম বেশী পাওয়ায় বেশ খুশি কৃষক।

কৃষকের আঙিনায় গড়াগড়ি খাচ্ছে নতুন ধান। গ্রামের মাঠে মাঠে আমনের ম-ম গন্ধ। সবাই মেতে নব-অন্নের ঘ্রাণে।

শান্তিগঞ্জে চলছে আমন ধান কাটা উৎসব। ফলনও ভালো। মৌসুমের শুরুতে হাটে আগাম ধানের দামও মিলছে ভালো। হিসাব করে এবার লাভের কথাই বলছেন চাষি। এবার আমনের ফলন ভালো হওয়ায় কৃষকের মনে আশা জাগছে। নবান্নে আনন্দে ধান কাটার ধূম পড়েছে।

শান্তিগঞ্জ উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সূত্রে জানা যায়, শান্তিগঞ্জ উপজেলায় এ বছর ২১৫০ হেক্টর জমিতে রোপা আমন আবাদ হয়েছে। এখন পর্যন্ত ১০ হেক্টর জমির ধান কর্তন হয়েছে। ফলন আশানুরূপের চেয়ে ভালো। চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ৬০৮১ মেট্রিকটন। এ বছর আধুনিক ও উন্নত জাতের ধান চাষ করা হয়েছে। পাশাপাশি স্বল্পজীবনকাল ব্রিধান ৭২,৭৫ ও বিনাধান ৭,১৭ আবাদ বেড়ে যাওয়ায় উৎপাদন বহুলাংশে বেড়েছে। এছাড়াও ধানের পাশাপাশি সরিষা উৎপাদনের জন্য অনুকূল পরিবেশ তৈরী হয়েছে৷ কৃষি বিভাগের আশা উৎপাদন আরও ভালো হবে। শুরু থেকেই কৃষি বিভাগ নিরলসভাবে কৃষকদের প্রয়োজনীয় পরামর্শ সহ নানা সহযোগিতা করে পাশে রয়েছে।

কৃষক আক্তার মিয়া বলেন, ১০ কেদার জমিতে আমন চাষ করেছি। ইতিমধ্যে আগাম জাতের ধান কাটা শুরু করে দিয়েছি। এক সপ্তাহের মধ্যে পুরাপুরি ধান কাটা শেষ করতে পারব। ক্ষতি পুষিয়ে এবার লাভবান হবো। আরেক কৃষক মতিউর রহমান জানান, এবার ধানের ফলন ভালো। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় পোকামাকড় ধানের কোন ক্ষতি করতে পারেনি। আশাকরি লাভবান হবো।

উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা উমায়েদ নূর বলেন, আমন রোপনের পর থেকেই ভালো ফলনের জন্য কৃষকদের বিভিন্ন পরামর্শ দিয়ে সার্বক্ষণিক পাশে আছি আমরা। এবার আমার জয়কলস ইউনিয়সহ উপজেলায় সর্বত্র উন্নত জাতের বীজ ব্যবহার করায় লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও ফলন বেশি হয়েছে।

এ ব্যাপারে শান্তিগঞ্জ উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ মাজেদুর রহমান বলেন, আমাদের শান্তিগঞ্জ উপজেলা এ বছর ধানের সবধরনের আধুনিক জাত চাষ হয়েছে যা পোকামাকড় সহনশীল। আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ফলন ভালো হয়েছে।ইতিমধ্যেই ধান কাটা শুরু হয়েগেছে। ১০-১৫ দিনের মধ্যে ধান কাটা শেষ হয়ে যাবে। আশাকরি লক্ষ্যমাত্রার চেয়েও বেশি ফসল উৎপাদন হবে।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার