• শনিবার   ১৭ এপ্রিল ২০২১ ||

  • বৈশাখ ৪ ১৪২৮

  • || ০৪ রমজান ১৪৪২

সর্বশেষ:
লকডাউনের তৃতীয় দিনে ফাঁকা সিলেট নগরী করোনায় মৃত্যুর সব রেকর্ড ভেঙে দাঁড়াল ১০১ এ জুড়ী উপজেলা রমজানে সবজির বাজারে দাম ঊর্ধ্বমুখী রোববার উদ্বোধন হবে দেশের সবচেয়ে বড় করোনা হাসপাতাল করোনা: ওসমানীর ল্যাবে ২০ জন শনাক্ত যুক্তরাষ্ট্রে বন্দুকধারীর হামলায় নিহত আট, আহত অনেক হবিগঞ্জে ভিজিডির ৬২ বস্তা চালসহ যুবক আটক কঠোর নজরদারিতে সিলেটে চলছে তৃতীয় দিনের লকডাউন

সুরমা নদী পাড়াপাড়ে অতিরিক্ত ভাড়া, ক্ষোভ যাত্রীদের

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ৩ মার্চ ২০২১  

সুনামগঞ্জ শহরের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া সুরমা নদীর খেয়াঘাটে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। খেওয়া পারাপারে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়কে কেন্দ্র কথা কাটাকাটির ঘটনাও ঘটছে। খেওয়াঘাটে সাইনবোর্ড স্থাপনের নীতিমালা থাকলেও কোনো খেওয়াঘাটে সাইনবোর্ড নেই।

খেওয়া যাত্রীরা জানান, খেওয়া ঘাটের ইজারা নিয়ে পরে সাব ইজারা দেওয়া হচ্ছে। সাব ইজারা নিয়ে ঘাটে ভাড়া আদায় করেন অন্যজন। ইজারাদার অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করতে কৌশলে উগ্র প্রকৃতির লোকজনকে নিযুক্ত করেন। যাত্রীদের সময়ের গুরুত্ব না বুঝে সাব ইজারাদার তাদের খেয়াল খুশিমত ফেরি পারাপার করেন। পৌরসভার ইজারাকৃত ফেরি পারাপারে এমন সমস্যা দিন দিন বেড়েই চলেছে। খেওয়া যাত্রীরা এই সমস্যা নিরসনে নীতিমালা অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান।

পৌরসভার সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা অনুপ চৌধুরী জানান, পৌরসভার অধীনে সুরমা নদীতে ৪টি খেওয়াঘাট প্রতিবছর ইজারা হয়। তাদেরকে বলা হয় সাইনবোর্ড স্থাপন করতে। কিন্তু তারা এই নির্দেশনা অমান্য করে চলছে।

হয়রানির শিকার খেওয়াযাত্রী আব্দুর রহিম বলেন, একবার পার হলে দিতে হয় ৫ টাকা। একটি সাধারণ বস্তা হাতে নিয়ে গেলে তাতেও ৫ টাকা দিতে হয়। ভাড়া মাফ নেই শিক্ষার্থীদেরও। অফিস আদালত না হলে শহরে আসা বন্ধ করে দিতাম।

সুনামগঞ্জ পৌরসভার নির্বাহী প্রকৌশলী মীর মোশারফ হোসেন বলেন, পৌরসভার ইজারাকৃত ফেরিঘাটের ইজারাদারদের প্রতিবছর বলে দেয়া হয় সাইনবোর্ড স্থাপন করার জন্য। কিন্তু তাঁরা কওে নি। এবারও সাইনবোর্ড স্থাপন করার কথা বলে দেবো।
 

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার