সোমবার   ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯   পৌষ ২ ১৪২৬   ১৮ রবিউস সানি ১৪৪১

সর্বশেষ:
জাতীয় স্মৃতিসৌধে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা সুনামগঞ্জে বাণিজ্য মেলার প্রবেশ টিকেট নিয়ে লটারি ব্যবসা! শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা জানাতে মানুষের ঢল বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বিজয় দিবসের জন্য ইউএনওর ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি
১১১৩

মিলার অভিযোগ নাকচ করলেন নওশীন 

বিনোদন ডেস্ক    

প্রকাশিত: ২৬ এপ্রিল ২০১৯  

জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী মিলার ব্যক্তিগত জীবনে সংকট কাটছেই না। স্বামী বৈমানিক পারভেজ সানজারির সঙ্গে তার বিবাহবিচ্ছেদ হলেও সাবেক স্বামীর সঙ্গে জড়িয়েছে অভিনেত্রীর নওশীনের নাম। তবে মিলার অভিযোগ নাকচ করেছেন নওশীন।

বুধবার বিকেলে ঢাকার বেইলি রোডের একটি রেস্তোরাঁয় সংবাদ সংম্মেলন করেন মিলা। এ সময় মিলা জানান, তার সাবেক স্বামী পারভেজ সানজারির সঙ্গে অভিনেত্রী নওশীনের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। 

মিলা  বলেন, তখনো আমাদের বিচ্ছেদ হয়নি, অথচ পারভেজের সঙ্গে নওশীনের নিয়মিত যোগাযোগ হতো। এমনকি পারভেজের সঙ্গে নওশীনের ঘনিষ্ঠ ছবিও হাতে এসেছিল মিলার। পাভেজের সঙ্গে নওশীনের ঘনিষ্ঠ ছবি দেখে আমি হিল্লোলকে (নওশীনের স্বামী) জানিয়েছি। কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। সাইবার ক্রাইমে উল্টো আমার বিরুদ্ধে  অভিযোগ করেছেন তারা।

সংবাদ সম্মেলনে নওশীনের সঙ্গে মোবাইল ফোনে নিজের বিবাদের একটি রেকর্ড শোনান মিলা। সেই রেকর্ডে শোনা যায়, পারভেজ সানজারির সঙ্গে পরিচয় থাকার কথা স্বীকার করেছেন নওশীন। এ ছাড়া পারভেজের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থায় তোলা ছবি নিয়ে নওশীনকে প্রশ্নবিদ্ধ করেন মিলা।

মিলার অভিযোগ, নওশীনের সঙ্গে তার সাবেক স্বামীর সম্পর্কের কারণেই সংসারজীবনে নেতিবাচক প্রভাব পড়েছিল।এ ছাড়া পারভেজ সানজারি ও তার পরিবারের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ‘বিচার’ চেয়েছেন মিলা।

এদিকে, মিলার সব অভিযোগই সরাসরি নাকচ করে দিয়েছেন নওশীন। তিনি বলেন, মিলার অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। আমি এর নিন্দা জানাচ্ছি। আমাকে ভুল বুঝেছে মিলা। সংবাদ সম্মেলনে যে কণ্ঠ আমার বলে শোনানো হয়েছিল, সেটি আমার নয়। ওটা ফেইক (ভুয়া)।মিলার সংসার ভাঙতে হলে তো আগে আমার সংসার ভাঙতে হবে। আমি ও হিল্লোল সুখে আছি। মিলার নামে সাইবার ক্রাইমেও আমি কোনো কিছু করিনি। আমি মিলার ভালো চাই। মিলার ব্যক্তিগত বিষয়ে আমাকে না জড়ানোর অনুরোধ করছি।

অন্যদিকে, বৃহস্পতিবার ফেসবুক লাইভে এসে মিলা  গণমাধ্যমগুলোর প্রতি আক্ষেপ করে তিনি বলেন, সংবাদ সম্মেলনে তিনি নিজের ও বাবা-মায়ের কষ্টের কথা তুলে ধরলেও খবরের শিরোনাম হয়েছে অভিনেত্রী নওশীনকে নিয়ে। শিরোনাম হওয়া উচিত ছিল আমার বিচার চাওয়া নিয়ে। আমি বিচার চাই (সাবেক স্বামীর)। সংবাদ সম্মেলনে তিনি আরো যে কয়েকজন মেয়ের নাম উল্লেখ করেছেন, অভিনেত্রী নওশীন ‘তাদের একজন’ বলে মন্তব্য করেন।

প্রসঙ্গত, ১০ বছর চুটিয়ে প্রেমের পর ২০১৭ সালের মে মাসে পাইলট পারভেজ সানজারিকে বিয়ে করেন মিলা। অথচ বিয়ের মাত্র ১৩ দিন পরেই তাদের মধ্যে দাম্পত্য কলহ শুরু হয়। সেই কলহের জের ধরেই বিচ্ছেদ ঘটে মিলা-পারভেজের।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার
এই বিভাগের আরো খবর