• শুক্রবার   ১৫ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ২ ১৪২৭

  • || ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
আবারও বাড়ল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ছুটি, বন্ধ থাকবে ৩০ জানুয়ারি পর্যন্ত নির্বাচনে সরকার কোনো হস্তক্ষেপ করবে না: কাদের করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ও শনাক্ত কমেছে সিলেটের ৭ পৌরসভায় ৪ স্তরের নিরাপত্তা বলয় সিলেটে ৪ ইটভাটাসহ ৬ প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা ইন্দোনেশিয়ায় শক্তিশালী ভূমিকম্প, নিহত বেড়ে ৩৬ সিলেটে বিনামূল্যে ‘ওয়াইফাই’, মিলছে না সেবা

বন্ধুকে ভোলেননি রক

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ৯ জানুয়ারি ২০২১  

ডোয়াইন জনসন ওরফে দ্য রককে দেখে তর সয়নি বন্ধু ব্রুনোর। জড়িয়ে ধরতে দৌড় শুরু করেছিলেন। পরে হঠাৎ মনে হলো, এখন তো করোনাকাল। জড়িয়ে ধরা মানা! অগত্যা কনুই মেলালেন দুজন। কিন্তু ব্রুনোর জন্য যখন বড়দিনের উপহার বের করলেন রক, তখন আবেগে তাঁকে জড়িয়েই ধরলেন ব্রুনো।

ডোয়াইন তখন খুব ছোট। বিশেষ কারণে মাকে নিয়ে হাওয়াই ছাড়তে হয়েছিল তাঁকে। তখন সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছিলেন বন্ধু ব্রুনো লাউয়ার ও তাঁর অভিভাবক। চালচুলোহীন ডোয়াইন জনসন একদিন হয়ে উঠলেন বিশ্বের জনপ্রিয় রেসলিং খেলোয়াড়, বিশ্বসেরা উপার্জনকারী তারকা অভিনেতা। কিন্তু শৈশবের সেই দিনগুলো ভোলেননি তিনি। বৃক্ষ হয়ে ছায়া দেওয়া বন্ধুকে মনে রেখেছেন গভীর কৃতজ্ঞতায়। এবারের বড়দিনে তাঁকে উপহার দিয়েছেন অতিকায় একটি গাড়ি। সেই উপহার পেয়ে আনন্দে হতবাক হয়ে গেছেন ব্রুনো।

নতুন বছরের প্রথম দিনের এই ঘটনার একটি ভিডিও ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেছেন দ্য রক। আর ক্যাপশনে লিখেছেন ব্রুনোর সঙ্গে তাঁর শৈশবের দিনগুলো নিয়ে। ভিডিওতে দেখা গেছে উপহার পেয়ে ডোয়াইন জনসনকে ব্রুনো বলেন, জীবনে এমন উপহার তাঁকে কেউ দেয়নি।

ভিডিওর সঙ্গে বিশাল পোস্ট লিখেছেন রক। সেখানে জানিয়েছেন শৈশবে হাওয়াই দ্বীপ থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয় তাঁকে ও তাঁর মাকে। এরপর টেনেসির ন্যাশভিলে বাবার সঙ্গে থাকতে যান তাঁরা। কিন্তু তিনি বুঝতে পারেন, বাবার সঙ্গে তাঁর থাকা হচ্ছে না। তখন তাঁকে আশ্রয় দিয়েছিলেন এই ব্রুনো। ব্রুনো তখন একটা ছোট্ট ঘরে থাকতেন। সেখানেই আশ্রয় দিয়েছিলেন রককে। এরপর পেরিয়ে গেছে অনেক বছর। ডোয়াইন জনসন শুরু করেন রেসলিং। তখনো আশ্রয় দরকার ছিল তাঁর। তখনো পাশে দাঁড়িয়েছেন ব্রুনো। সেই বন্ধুকে কি ভোলা যায়? 

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার