• শনিবার   ১৫ আগস্ট ২০২০ ||

  • শ্রাবণ ৩০ ১৪২৭

  • || ২৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

সর্বশেষ:
২৩ সেপ্টেম্বর একসঙ্গে শ্রীলঙ্কা যাবে এইচপি ও জাতীয় দল যেকোনো সোর্স থেকে করোনার ভ্যাকসিন সংগ্রহের তাগিদ অর্থমন্ত্রীর অক্টোবরে হচ্ছে না বাংলাদেশের বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের ম্যাচ সিলেটের সীমান্ত নদ-নদীর পানিও বাড়ছে শ্রীমঙ্গলে এতিম তিন শিশুকে খাদ্য সহায়তা দিলেন এসপি সুনামগঞ্জে হঠাৎ এখানে-ওখানে জ্বলে ওঠে আগুন স্বাস্থ্যবিধি মেনে সেপ্টেম্বরে এইচএসসি পরীক্ষা
১৭

পশ্চিম পীরমহল্লায় দুর্ধর্ষ চুরি, ২১ ভরি স্বর্ণালংকার লুট!

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৮ জুলাই ২০২০  

সিলেট নগরীর পশ্চিম পীরমহল্লা এলাকায় এক দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ২১ (একুশ) ভরি স্বর্ণালংকারসহ বেশ কিছু পাউন্ড এবং নগদ অর্থ লুট করে নিয়ে যায় দুষ্কৃতিকারীরা।

রোববার রাত আনুমানিক ৯ টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে জানান বাড়ির মালিক ও সরকারি টিচার্স ট্রেনিং কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ড. দিদার চৌধুরী।

স্থানীয় এলাকাবাসীর মাধ্যমে জানা যায়, পশ্চিম পীরমহল্লাস্থ ঐক্যতান ৯৬/২ নাম্বার বাসার দু'তলা ভবনের দ্বিতীয় তলায় বসবাসরত ড. দিদার চৌধুরী স্ত্রী-সন্তানসহ পরিবার নিয়ে গতকাল (রবিবার) রাত ৮ টার দিকে ঘরের প্রধান ফটক তালাবদ্ধ করে বাহিরে বের হন। রাত পৌনে ১০ টার দিকে ফিরে এসে তিনিসহ পরিবারের সবাই ঘরের প্রধান দরজা এবং বেডরুমের তালা ভাঙ্গা অবস্থায় দেখতে পান। পাশাপাশি ঘরের বেডরুমস্থ আলমারির তালা ভাঙ্গা এবং পুরো ঘরের প্রতিটি কক্ষ ওলটপালট অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখা যায়। এছাড়াও দিদার চৌধুরির আপন বড় ভাই নওশারেন চৌধুরী পরিবার নিয়ে একই ভবনের নিচতলায় বসবাসরত এবং উক্ত চুরির ঘটনা ঘটাকালিন নিচতলায় সবাই বাসায় উপস্থিত ছিলেন বলেও জানা যায়।

এ ঘটনায় ভুক্তভোগী ড. দিদার চৌধুরী জানান, আমি আমার পরিবারকে নিয়ে একটি ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে যোগ দিতে রাত ৮ টায় ঘর তালাবদ্ধ করে বের হই। ফিরে এসে রাত আনুমানিক রাত পৌনে ১০ টার দিকে দেখতে পাই ঘরের দু'টি দরজাসহ আমাদের বেডরুমের আলমারির তালা ভাঙ্গা এবং পুরো ঘর এলোমেলো করা। এছাড়া তিনি আরও বলেন, উক্ত সময়ে আমাদের অনুপস্থিতিতে দুষ্কৃতিকারীরা তালা ভেঙ্গে আমার স্ত্রী,কন্যা এবং মায়ের ২১ ভরি স্বর্ণালংকারসহ প্রায় সাড়ে ছয়শত পাউন্ড এবং  নগদ ৫/৭ হাজার টাকা চুরি করে নিয়ে যায়।

তার স্ত্রী শোভা চৌধুরী (গৃহিণী) জানান, এই নিয়ে বিগত ৫ বছরে পরপর তিনবার আমাদের বাসায় চুরির ঘটনা ঘটে এবং আমরা এতে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হই। ঘটনাক্রমে থানায় একাধিক বার মামলা দায়ের করা হলেও চুরির ঘটনায় জড়িত দুষ্কৃতিকারীদের গ্রেফতারে ব্যর্থ হয় সংশ্লিষ্ট প্রশাসন।

এ ব্যাপারে একই ভবনে বসবাসকারি, ভুক্তভোগী ড. দিদার চৌধুরির আপন বড় ভাই এবং স্থানীয় এলাকার ৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলরের অফিসের বিচার-সালিশি কমিটিতে কর্মরত নওশারেন চৌধুরী জানান, আমাদের পুরো এলাকা মোট ১৭ টি সিসি ক্যামেরা দ্বারা নিয়মিত পর্যবেক্ষণ করা হয়। কিন্তু আমার ছোট ভাইয়ের বাসায় এ ঘটনাসহ বছর পাঁচেক এর ভেতর পরপর তিনবার একই টার্গেটে চুরির ঘটনা সংঘঠিত হয়েছে যা সম্পূর্ণ উদ্দেশ্য প্রণোদিত। তবে চুরিডাকাতি বন্ধে এলাকার কিছু কিছু স্থানে আরও বেশ কয়েকটি সিসি ক্যামেরা স্থাপনের কাজ চলছে বলেও জানান তিনি। 

বছর পাঁচেক এর মধ্যে একই বাসায় পরপর তিনবার দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনার ব্যাপারে প্রশ্ন করলে নিজের অপারগতা ও দুঃখ প্রকাশ করে প্রতিনিধিকে ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর আফতাব হোসেন খান বলেন, এলাকার প্রতিটি বাড়িঘর আমার নিজের হিসেবে বিবেচনা করি। এছাড়াও বাড়ির মালিক (নওশারেন চৌধুরি) আমার অফিসে  কর্মরত রয়েছেন। তার বাসায় এরকম বারবার ঘটতে থাকা চুরির ঘটনা অপ্রত্যাশিত এবং ন্যাক্কারজনক। জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় এনে সুষ্ঠু বিচারের দাবিসহ উক্ত এলাকার দায়িত্বপ্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট প্রশাসন এবং সাংবাদিক মহলের তৎপরতা বৃদ্ধিতে জোরালোভাবে আহবান জানাচ্ছি। এছাড়াও এ ঘটনায় জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতারে সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদান করবেন বলেও জানান তিনি। 

উক্ত চুরির ঘটনায় সোমবার দুপুরে কয়েক জনকে অজ্ঞাতনামা করে এয়ারপোর্ট থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন ভুক্তভোগী ড. দিদার চৌধুরী।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার
সিলেট বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর