শনিবার   ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ২২ ১৪২৬   ০৯ রবিউস সানি ১৪৪১

২০০২

‘নগদ’কে অনুসরণ করে এগুচ্ছে বিকাশ!

প্রকাশিত: ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

বাংলাদেশ ডাক বিভাগের নতুন মোবাইল ব্যাংকিং সেবা ‘নগদ’ চালু হওয়ার পর গ্রাহকদের মাঝে ব্যাপক সাড়া পড়েছে। নগদ এর মাধ্যমে দিনে আড়াই লাখ টাকা পর্যন্ত লেনদেন করতে পারছেন গ্রাহকরা। যা বিকাশ, রকেট সহ বিদ্যমান মোবাইল ব্যাংকিং সেবাগুলোর চেয়ে কয়েকগুণ বেশি।  

তাই নগদ এর মার্কেটিং পলিসি, গ্রাহক সেবা বৃদ্ধি, লেনদেনের পরিমাণ বৃদ্ধি, গ্রাহকদের বাড়তি প্রণোদনা দেয়া, গ্রাহকদের স্ব-নিবন্ধন প্রক্রিয়া ডিজিটাল করার মতো কার্যক্রমকে অনুসরণ করছে ব্র্যাক ব্যাংকের মোবাইল ব্যাংকিং সার্ভিস ‘বিকাশ’। এরই মধ্যে নগদকে অনুসরণ করে বিকাশও লেনদেনে লিমিট বৃদ্ধি করেছে। আগে একজন বিকাশ গ্রাহক দিনে ২ বারে সর্বোচ্চ ১৫ হাজার, মাসে ২০ বারে ১ লাখ টাকা ক্যাশ-ইন এবং দিনে ২ বারে ১০ হাজার, মাসে ১০ বারে সর্বোচ্চ ৫০ হাজার টাকা ক্যাশ-আউট করতে পারতেন। কিন্তু নগদের লেনদেনের লিমিটে গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ায় বিকাশ কর্তৃপক্ষও লেনদেনের লিমিট বৃদ্ধি করে। এখন একজন বিকাশ গ্রাহক দিনে পাঁচবার প্রতিবার সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা ক্যাশ-ইন ও প্রতিবার ২৫ হাজার টাকা ক্যাশ-আউট করতে পারবেন। এছাড়া, নগদ এর গ্রাহকদের স্ব-নিবন্ধন প্রক্রিয়াকে অনুসরণ করে বিকাশ কর্তৃপক্ষও কেওয়াইসি বা স্ব-নিবন্ধন প্রক্রিয়াতে পরিবর্তন এনেছে। স্বয়ংক্রিয় করা হয়েছে নিবন্ধন প্রক্রিয়াও। অন্যদিকে গ্রাহক সংখ্যা বৃদ্ধির লক্ষ্যে নগদের লাখপতি হওয়ার ক্যাম্পেইনও অনুসরণ করছে বিকাশ। বিকাশ কর্তৃপক্ষ এরই মধ্যে টেলিভিশন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লাখপতি হওয়ার ক্যাম্পেইন চালু করেছে। এছাড়া প্রান্তিক পর্যায়ে নগদ এর গ্রাহক সেবা নিয়ে জনপ্রিয় বিজ্ঞাপনের আদলে নতুন নতুন বিজ্ঞাপন নির্মাণ করে সেটি প্রচার করছে বিকাশ। নগদকে অনুসরণ করে ফিন্যান্সিয়াল মার্কেটে নিজেদের অবস্থান ধরে রাখতে নগদকে অনুসরণ করা অব্যাহত রেখেছে বিকাশ কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, উদীয়মান নগদ এর সাথে বাজারে প্রতিযোগিতায় টিকে থেকে গ্রাহক সংখ্যা বাড়াতে এই সিদ্ধান্ত নিয়ে বিকাশ কর্তৃপক্ষ। পাশাপাশি বিকাশ এর গ্রাহক সেবার অসন্তোষ দূর, গ্রাহক হয়রানি বন্ধ ও নতুন গ্রাহককে বাড়াতে নগদকে মডেল মনে করে বিকাশের সেবা বাড়ানোর বিষয়ে নতুন করে চিন্তা ভাবনা করছে সংস্থাটির কর্তৃপক্ষ।

সূত্র বলছে, সরকারি ডাক বিভাগ পরিচালিত মোবাইল ব্যাংকিং সেবা ‘নগদ’ এ লেনদেনে লাখপতি হওয়ার সুযোগ তৈরি রেখে একটি প্রচারণা চালাচ্ছে সংস্থাটির কর্তৃপক্ষ। ১ লা সেপ্টেম্বর চালু হওয়া এই ভিন্ন রকমের গ্রাহক প্রণোদনা ব্যবস্থায় ব্যাপক সাড়া পাচ্ছে নগদ। জানা গেছে, নগদের উদ্যোক্তা পয়েন্ট থেকে প্রতি ২,৫০০ বা তার বেশি টাকা ক্যাশ ইন করলে এবং পরবর্তীতে প্রশ্নের সঠিক উত্তর দিয়ে গ্রাহকরা লাখপতি হওয়ার সুযোগ পাবেন। প্রতি সপ্তাহে কমপক্ষে একজন গ্রাহক জিতে নিতে পারবেন ৫০,০০০ টাকা এবং ১০০,০০০ টাকা। এছাড়া লেনদেনে ভেদে অন্যান্য গ্রাহকরাও পেতে পারেন আর্থিক সুবিধা। এই ক্যাম্পেইন চালু করার পর থেকে রাজধানী সহ সারাদেশে নগদ এর উদ্যোক্তা পয়েন্টগুলোতে লেনদেন বেড়ে গেছে দ্বিগুণ পরিমাণে। যার কারণে কিছুটা দুশ্চিন্তিত হয়ে পড়ে বিকাশ কর্তৃপক্ষ। ডিজিটাল আর্থিক সেবা নিয়ে বাংলাদেশে বিকাশ, রকেটসহ অন্যান্য মোবাইল ব্যাংকিং প্রতিষ্ঠান সেবা প্রদান করলেও নগদে জমার ক্ষেত্রে ২৫ গুণ এবং উত্তোলনে ১৭ গুণ বেশি লেনদেনের সুবিধা থাকায় গ্রাহকদেরও আকর্ষণ করছে নগদ। তাই নগদকে অনুসরণ করে মোবাইল ব্যাংকিং খাতে এগিয়ে থাকতে চায় বিকাশ। সেলক্ষ্যেই অনেকটা রাখঢাক দূর করেই নগদকে অনুসরণ করতে বাধ্য হচ্ছে বিকাশ।

নগদের বিভিন্ন ক্যাম্পেইন ও সেবা অনুসরণ করার বিষয়ে জানতে চাইলে পরিচয় গোপন রাখার শর্তে বিকাশ হেড অফিসের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেন, মানি মার্কেটে এগিয়ে থাকতে হলে বিকাশকে অন্যান্য কোম্পানির সাথে পাল্লা দিয়ে চলতে হবে। নতুন নতুন পরিষেবা গ্রাহকদের উন্মোচন করতে হবে। যেমন ধরেন, নগদ প্রণোদনা দিয়ে ক্যাম্পেইন চালাচ্ছে, রেজিস্ট্রেশন ব্যবস্থা ডিজিটাল করেছে। গ্রাহকরা নিজেরাই এখন রেজিস্ট্রেশন করতে পারছেন। সুতরাং নগদ এর মতো বিকাশও নতুন কিছু ক্যাম্পেইন প্রচার করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এটিকে আসলে অনুকরণ বা অনুসরণ বলা যাবে না। গ্রাহক সেবার মান বৃদ্ধি বলতে পারেন। নগদ এর মতো আরো গ্রাহক বান্ধব ও সেবা সহজলভ্য করতে আমরা গবেষণা চালাচ্ছি।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার
এই বিভাগের আরো খবর