মঙ্গলবার   ২১ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ৭ ১৪২৬   ২৫ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
সুনামগঞ্জের বীরগাঁওয়ে মিনিবার ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন স্বীকৃতি পাচ্ছেন সিলেটের আরো ১৮০ মুক্তিযোদ্ধা শ্রীলঙ্কাকে উড়িয়ে সেমিতে বাংলাদেশ শহীদ আসাদ দিবস আজ ফের কমলার চাষ করতে চায় সিলেটের কৃষক ফাস্ট ট্র্যাক প্রকল্পের সংখ্যা বাড়াতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশ
১২১

তৃণমূলের দিকে মনোযোগ বাড়াচ্ছে সিলেটে আওয়ামী লীগ 

সিলেট প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ৯ জানুয়ারি ২০২০  

অতীতের ব্যর্থতা কাটিয়ে সিলেটে দল গোছানো ও শক্তিশালী করার কাজ শুরু করেছে আওয়ামী লীগ। জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের দায়িত্বপ্রাপ্ত চার নেতা ইতোমধ্যে শুরু করেছেন সেই কাজ। তৃণমূল পর্যায় থেকে দলকে সুসংগঠিত করার উদ্যোগ নিয়েছেন তারা। মুজিববর্ষকে কাজে লাগিয়ে দলের সকল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের চাঙা করারও পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

গত ৫ ডিসেম্বর সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব পায় সিলেট জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ। চমকের এই সম্মেলনে বাদ পড়েন জেলা ও মহানগর শাখার শীর্ষ তিন নেতা। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট লুৎফুর রহমান ছাড়া বাদ পড়েন বাকি তিন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। আর কেন্দ্রীয় সম্মেলনে আরো বড় চমক দেখিয়ে তিনবারের সাংগঠনিক সম্পাদক মিসবাহ উদ্দিন সিরাজের স্থলাভিষিক্ত হন মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল।

সিলেট আওয়ামী লীগের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া এই ‘টর্নেডো’র জন্য গত সিটি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর পরাজয়কেই দায়ী করছেন নেতাকর্মীরা। সিটি নির্বাচনে পরাজয়ের পর সিলেটে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক দুর্বলতাকে দায়ি করেছিল কেন্দ্র। তাই দলকে নতুন করে ঢেলে সাজাতে এবার নেতৃত্বে ব্যাপক পরিবর্তন আনা হয়েছে বলে মনে করছেন স্থানীয় নেতাকর্মীরা। একই ধারণা দায়িত্ব পাওয়া নেতাদেরও।

তাই দায়িত্ব পেয়েই তারা সর্বাগ্রে গুরুত্ব দিচ্ছেন সাংগঠনিক দুর্বলতা কাটিয়ে দলকে আরও সুসংগঠিত করার কাজকে। দায়িত্ব পাওয়ার এক মাসের মধ্যেই মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাসুক উদ্দিন আহমদ ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন মহানগরীর সকল ওয়ার্ডের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে নিয়ে সভা করেছেন। নির্দেশ দিয়েছেন ওয়ার্ড পর্যায়ে দলকে আরো শক্তিশালী করার। এছাড়া সিলেট নগরীর উন্নয়নে ১২শ’ কোটি টাকা বরাদ্দ দেওয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে আনন্দ মিছিল করে মহানগর আওয়ামী লীগ। ওই মিছিলে ওয়ার্ড পর্যায়ের নেতাকর্মীদের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যণীয়। এর আগের দিন গত ৩০ ডিসেম্বর বর্তমান সরকারের প্রথমবর্ষপূর্তি উপলক্ষে সিলেটে আনন্দ মিছিল করে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ।

এ ব্যাপারে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন বলেন, ‘মহানগর আওয়ামী লীগ নেতানির্ভর নয়, কর্মীনির্ভর হবে। প্রতিটি ওয়ার্ড কমিটিকে শক্তিশালী করা হবে। নেতাদের কাছে কর্মীরা আসতে হবে না, সংগঠনের জন্য কর্মীদের কাছে নেতারা ছুটে যাবেন; দলকে এভাইে শক্তিশালী করার কাজ শুরু হয়েছে।’

মহানগর শাখার মতো জেলা আওয়ামী লীগও শুরু করেছে উপজেলা শাখাগুলোকে সুসংগঠিত করার কাজ। সম্প্রতি ফেঞ্চুগঞ্জ উপজেলায় জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা বিশাল জনসমাবেশ করেছেন। এছাড়া প্রতিটি উপজেলায় মুজিববর্ষ পালনের মাধ্যমে দলের তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের চাঙ্গা করে সংগঠনকে শক্তিশালী করার উদ্যোগ নিয়েছেন তারা।

সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নাসির উদ্দিন খান বলেন, ‘সিলেটে আওয়ামী লীগকে আগের চেয়ে অনেকগুণ শক্তিশালী করতে তৃণমূল পর্যায় থেকে কাজ শুরু হয়েছে। মুজিববর্ষে প্রতিটি উপজেলায় ব্যাপক অনুষ্ঠানযজ্ঞের পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে ঝিমিয়ে পড়া নেতাকর্মীদের চাঙ্গা করে দলকে তৃণমূল পর্যায় থেকে শক্তিশালী করাই হচ্ছে জেলা আওয়ামী লীগের মূল লক্ষ্য।’
 

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার
এই বিভাগের আরো খবর