মঙ্গলবার   ১৯ নভেম্বর ২০১৯   অগ্রাহায়ণ ৪ ১৪২৬   ২১ রবিউল আউয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
লিফট ছিঁড়ে পড়লেন আমীর খসরুসহ বিএনপি নেতারা টমেটো চাষে স্বাবলম্বী হচ্ছেন কমলগঞ্জে কৃষকরা! ২ ঘণ্টা লাইনে দাঁড়িয়ে পিঁয়াজ কিনলেন মেয়র আরিফ সিলেটে মহানগরীর ৩টি স্থানে বিক্রি হচ্ছে টিসিবির পেঁয়াজ
৭৩৪

টিভি নাটকের চুক্তিপত্র স্বাক্ষর নিয়ে জটিলতা

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৯  

নতুন বছরের শুরু থেকেই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছিল চুক্তি স্বাক্ষর করে নাটকের শুটিংয়ের। এই উদ্যোগের পেছনের কারিগর ছিল নাটক নির্মাণের সঙ্গে জড়িত ছয়টি সংগঠন। এগুলো হলো ডিরেক্টরস গিল্ড, টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ, অভিনয় শিল্পী সংঘ, টেলিভিশন নাট্যকার সংঘ, ক্যামেরাম্যান অ্যাসোসিয়েশন ও টেলিভিশন মিডিয়া মেকআপ আর্টিস্ট অ্যাসোসিয়েশন। এসব সংগঠনের সদস্যরা মিলে গত ২ জানুয়ারি থেকে ঘটা করে বিভিন্ন শুটিং স্পটে গিয়ে অভিনয়শিল্পীসহ কলাকুশলীদের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর করান। তারপরই নাটকের শুটিং হয়।

প্রথম কয়েক দিন এভাবেই চলছিল। কিন্তু উদ্যোগ নেওয়ার পর মাস না পেরোতেই শুরু হয়েছে জটিলতা। এখন আর চুক্তি স্বাক্ষর না করেই হচ্ছে বেশির ভাগ নাটকের শুটিং। মূল কথা, এক মাসের মধ্যে ভেস্তে গেছে চুক্তি স্বাক্ষরের নিয়মকানুন। সম্প্রতি উত্তরাসহ বেশ কিছু শুটিংবাড়ি ঘুরে দেখা গেছে এ দৃশ্য। যদিও ডিরেক্টরস গিল্ডসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা জানিয়েছিলেন, এখন থেকে নিয়মিত চুক্তি স্বাক্ষর করে শুটিং করতে হবে।

কিন্তু এক মাসের মধ্যে এই উদ্যোগ ভেস্তে যাওয়া প্রসঙ্গে ডিরেক্টর গিল্ডের সভাপতি ও অভিনেতা সালাহউদ্দিন লাভলু বলেন, ‘আমরা চুক্তি স্বাক্ষরের উদ্যোগ নেওয়ার পর প্রযোজকদের সংগঠন টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের বেশ কিছু সদস্য একটু আপত্তি তোলেন। তাঁরা তাঁদের নিজস্ব প্যাডে চুক্তি স্বাক্ষর করার বিষয়ে মত দেন। এদিকে আগামী মার্চে ওই সংগঠনের নির্বাচন। তাই সবাই চাইছেন নির্বাচনের পর এটি সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করার। এ কারণে একটু জটিলতা দেখা দিয়েছে।’ 

২ জানুয়ারি শুরু হওয়ার পর থেকে এখন পর্যন্ত শতভাগ চুক্তি স্বাক্ষর নিশ্চিত করা যায়নি বলে জানান অভিনয় শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবীব নাসিম। তিনি জানান, শতভাগ না হলে ৫০ ভাগ চুক্তিপত্র স্বাক্ষর করে শুটিং হচ্ছে। তবে তিনিও প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশনের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘আসলে যেকোনো বিষয়ে দীর্ঘদিনের অভ্যাসকে বাদ দিয়ে নিয়মকানুনে অভ্যস্ত হতে সময় লাগে। চুক্তি স্বাক্ষর না করে শুটিং করা তো আমাদের দীর্ঘদিনের অভ্যাস। তাই সময় লাগছে। তা ছাড়া সামনে প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশনের নির্বাচন। তাই তাঁরা চাইছেন নির্বাচনের পরেই পুরোদমে শুরু হোক।’

চুক্তি স্বাক্ষরের ব্যাপারে টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ইরেশ যাকের বলেন, ‘নির্বাচনের পর আমরা আরও শক্তিশালী হব। এ কারণে একটু কম সক্রিয়তা আছে। নতুন কমিটি নিশ্চয়ই আরও উদ্যোগী হবে।’

তবে শুধু এবারই নয়, এই ছয় সংগঠন সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে ২০১৭ সালের ৭ জুলাই ঘটা করে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করে ডিরেক্টরস গিল্ড, টেলিভিশন প্রোগ্রাম প্রডিউসারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ও অভিনয় শিল্পী সংঘ। কথা ছিল, ওই সময় থেকেই চুক্তিপত্র স্বাক্ষর ও নিয়মকানুন মেনে শুটিং হবে। কিন্তু সেই উদ্যোগও বাস্তবায়ন হয়নি।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার
এই বিভাগের আরো খবর