• শনিবার   ০৬ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২৩ ১৪২৭

  • || ১৪ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
হবিগঞ্জে বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু হবিগঞ্জ করোনা আতঙ্ক: ফুটপাতের খাবারের ব্যবসায় মন্দা বাংলাদেশি সেনাদের নিয়ে গর্ব করা উচিত: অ্যান্তোনিও গুতেরেস জুড়ীতে আরও ২ জনের করোনা শনাক্ত লোভাছড়ায় রাতের আঁধারে পাথর বহন, রাজস্ব ফাঁকি বড়লেখায় করোনায় আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউন করলো প্রশাসন স্ত্রীর পর সাবেক মেয়র কামরানও করোনায় আক্রান্ত
১৬৪

চলে গেলেন বলিউড অভিনেতা ইরফান খান

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৯ এপ্রিল ২০২০  

চারদিন আগে মাকে হারিয়েছেন। এবার নিজেই চিরবিদায় নিলেন ইরফান খান। ভারতের অন্যতম জনপ্রিয় এই অভিনেতা আর নেই। 

আজ বুধবার (২৯ এপ্রিল) মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন ধিরুবাই আম্বানি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর।

কোলন সংক্রমণের কারণে হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়া হয়েছিল ইরফানকে। তার মুখপাত্র জানিয়েছিলেন, চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে আছেন তিনি। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। তার পাশে ছিলেন স্ত্রী সুতপা সিকদার ও দুই ছেলে বাবিল ও আয়ান খান।

২০১৮ সালের মে মাসে নিওরোএন্ডোক্রাইন টিউমারে আক্রান্ত হন ইরফান খান। উন্নত চিকিৎসার জন্য লন্ডনে অনেকটা সময় ছিলেন তিনি।

অসুস্থতার সঙ্গে লড়াই নিয়ে কিছুদিন আগে আবেগঘন কথা লিখেছিলেন ইরফান, ‘‘আমার বাজি ছিল অন্যরকম। দ্রুতগতির একটি ট্রেনে ঘুরছিলাম। স্বপ্ন, পরিকল্পনা, আকাঙ্ক্ষা ও লক্ষ্য ছিল। এগুলোকে ঘিরে খুব ব্যস্ত ছিলাম। হঠাৎ কেউ আমার কাঁধে টোকা দিলো এবং আমি পিছু ফিরে তাকালাম। তিনি টিকিট কালেক্টর। আমাকে জানালেন, ‘আপনার গন্তব্য চলে এসেছে। অনুগ্রহ করে নামুন।’ আমি দ্বিধাগ্রস্ত হয়ে বললাম, ‘না, না। আমার গন্তব্য আসেনি।’ টিকিট কালেক্টর বললেন, ‘না, এটাই আপনার গন্তব্য।’ কখনও কখনও এমন হয়।’’

গত ২৫ এপ্রিল ইরফানের মা সাইদা বেগম রাজস্থানে মারা যান। সারাভারতে আরোপিত অবরোধের (লকডাউন) কারণে তাকে সামনে থেকে শেষবারের মতো দেখা হয়নি তার। ভিডিও কলের মাধ্যমে মাকে শেষ শ্রদ্ধা জানান তিনি। মায়ের যাওয়ার চারদিন পর ছেলেও চলে গেলেন না ফেরার দেশে।

এ বছর ‘অ্যাংরেজি মিডিয়াম’ ছবির মাধ্যমে বড় পর্দায় ফিরেছিলেন ইরফান। তবে এর প্রচারণা করতে পারেননি তিনি। এটি তারই অভিনীত অভাবনীয় ব্যবসাসফল ছবি ‘হিন্দি মিডিয়াম’-এর সিক্যুয়েল।

লকডাউন ঘোষণার আগে মুক্তি পাওয়া ‘অ্যাংরেজি মিডিয়াম’-এ মেয়ের ইচ্ছেপূরণের জন্য সব প্রতিকূলতার বিরুদ্ধে যাওয়া একজন অবুঝ বাবার চরিত্রে ইরফানের অভিনয় প্রশংসিত হয়েছে। লকডাউনের কারণে সিনেমা হলে থেমে যায় ছবিটি। এরপর এটি মুক্তি পায় অনলাইনে। হোমি আদাজানিয়ার পরিচালনায় এতে আরও অভিনয় করেছেন কারিনা কাপুর, রাধিকা মদন ও দীপক দোবরিয়াল।

‘ডুব’ ছবির শুটিংয়ে ঢাকায় এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন ইরফান খানইরফানের সেরা কাজের তালিকায় অন্যতম বিশাল ভরদ্বাজের ‘মকবুল’ (২০০৩) ও সুজিত সরকারের ‘পিকু’ (২০১৫)। ২০১২ সালে তিগমাংশু ধুলিয়ার ‘পান সিং তোমর’ ছবিতে দারুণ অভিনয়ের সুবাদে ভারতের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান তিনি।

হলিউডের বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করে আন্তর্জাতিক খ্যাতি পেয়েছেন ইরফান খান। এ তালিকায় উল্লেখযোগ্য— ড্যানি বয়েলের ‘স্লামডগ মিলিয়নিয়ার’ (২০০৮), রন হাওয়ার্ডের ‘ইনফারনো’ (২০১৬) এবং অ্যাঙ লি পরিচালিত ‘লাইফ অব পাই’ (২০১২)।

বাদ যায়নি বাংলাদেশের ছবিও। মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর পরিচালনায় ‘ডুব’ ছবির প্রধান চরিত্রে দেখা গেছে তাকে। এর ইংরেজি নাম ‘নো বেড অব রোজেস’। এতে বাংলাদেশের কিংবদন্তি সাহিত্যিক ও নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের জীবনের ছায়া পাওয়া যায় তার জাভেদ চরিত্রে। এটি সহ-প্রযোজনা করেছিলেন তিনি।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার
বিনোদন বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর