• বুধবার   ২১ অক্টোবর ২০২০ ||

  • কার্তিক ৬ ১৪২৭

  • || ০৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

সর্বশেষ:
করোনামুক্ত পরিকল্পনামন্ত্রী রায়হান হত্যা: নতুন কর্মসূচি দিলো এলাকাবাসী মুজিবনগরকে দৃষ্টিনন্দন করতে ৫৪০ কোটি টাকার প্রকল্প জগন্নাথপুরে দুদিন ব্যাপী ই-নথি প্রশিক্ষণ শুরু সংসদের বিশেষ অধিবেশন বসছে নভেম্বরে তাহিরপুর সীমান্তে পৃথক অভিযানে ভারতীয় মাদকসহ আটক- ১

চট্টগ্রামে ‘সাধারণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলন’ স্থগিত

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ১২ অক্টোবর ২০২০  

বিগত এক সপ্তাহ ধরে ধর্ষকদের বিরুদ্ধে চলমান আন্দোলনের ইতি টানল চট্টগ্রামের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। সম্প্রতি সারা বাংলাদেশে নারী নির্যাতন, নিপীড়ন ও ধর্ষণের মত জঘণ্য অপরাধ বেড়ে যাওয়ায় চট্টগ্রামে আন্দোলন শুরু করে ছাত্রজনতা। চট্টগ্রামের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা প্রেসক্লাব ও ওয়াসার মোড়ে গত সপ্তাহ ধরে ধর্ষকদের ফাঁসির দাবীতে আন্দোলন করে আসছিল শিক্ষার্থীরা। আইনে ধর্ষণের অপরাধে যথাযথ শাস্তি না থাকায় বারবার ধর্ষকরা জঘন্যতম এই অপরাধ করে পার পেয়ে যাওয়ায় আইনের সংশোধনীর জন্য আন্দোলন করে আসছিল শিক্ষার্থীরা। তারই প্রেক্ষিতে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে এ সংক্রান্ত আইনটির একটি সংশোধনী প্রস্তাব অনুমোদন করেছে বাংলাদেশের সরকার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজ মন্ত্রিসভার বৈঠকে আইনের সকল সংশোধনী প্রস্তাব মন্ত্রিসভার বৈঠকে অনুমোদন দেয়া হয়। দাবী মেনে নেওয়ায় সাধারণ শিক্ষার্থীরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতি সম্মান জানিয়ে আন্দোলন স্থগিত করেন।

এসময় অবস্থান কর্মসূচির সমন্বয়ক আরিফ উদ্দীন জানান ‘আমরা ধর্ষকদের শাস্তি ফাঁসির দাবিতে সপ্তাহখানেক ধরে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন চালিয়ে আসছি। এই সামাজিক সমস্যা দূর করতে হলে সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী উনার দেওয়া কথা রেখেছেন। ধর্ষকদের ফাঁসি নিশ্চিত করা হবে এই আশা রেখে আমরা চট্টলার ছাত্রসমাজ আমাদের কর্মসূচি স্থগিত ঘোষণা করি’

এসময় অবস্থান কর্মসূচির সমন্বয়ক সাজ্জাদুল ইসলাম সোহাগ, সাফওয়াত সানিম, নাহিদুল আলম, জামেশদুল ইসলাম, মোহাম্মদ মিসবাহ,মুশফিকুল হায়দার ।

আন্দোলনে বিভিন্ন স্কুল, কলেজের শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি নগরীর বিভিন্ন সামাজিক সংগঠন সংহতি প্রকাশ করে অংশগ্রহণ করেছিল।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার