• বৃহস্পতিবার   ০৪ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৯ ১৪২৭

  • || ২০ রজব ১৪৪২

সর্বশেষ:
স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় আরো ৫ জনের মৃত্যু দুদকে নতুন চেয়ারম্যান ২২শ রোহিঙ্গা নিয়ে ভাসানচরের পথে ৬ জাহাজ সুরমা নদী পাড়াপাড়ে অতিরিক্ত ভাড়া, ক্ষোভ যাত্রীদের ভারতকে এক নিলেন ইনজামাম সিলেটে করোনা: কমছে মৃত্যুর সংখ্যা জকিগঞ্জ থানার নতুন ওসি কাসেম খাঁন

কিশমিশ না আঙুর, স্বাস্থ্যের জন্য কোনটা বেশি উপকারী?

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

কিশমিশ এবং আঙুর দুটির পুষ্টিগুণ আলাদা হয়। তাই কারো জন্য আঙুর ভালো, কারো জন্য আবার কিশমিশ। অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতেই পারে যে, এই দুইয়ের মধ্যে কোনটা স্বাস্থ্যের পক্ষে ভালো?

আঙুল ফলেরই শুকনো রূপ হচ্ছে কিশমিশ। আঙুরকে রোদে শুকিয়ে কিশমিশ বানানো হয়। বিভিন্ন রান্নায় কিশমিশ ব্যবহৃত হয়। এমনিতেও খাওয়া যায়। পটাশিয়াম, আয়রন ও ক্যালসিয়ামের মতো পুষ্টিতে ভরপুর কিশমিশ শক্তিবর্ধক হিসেবে পরিচিত।

আঙুর শুকিয়ে এলে এতে চিনির পরিমাণ অনেক ঘন হয়ে যায়। তাই কিশমিশে আঙুরের চেয়ে বেশি চিনি থাকে। যারা ডায়াবেটিসে ভুগছেন তাদের জন্য এটি ক্ষতিকারক। ফল শুকিয়ে গেলে, তার মধ্যে উপস্থিত যৌগটি ঘন হয়ে যায়। তাই কিশমিশে আঙুরের চেয়ে তিন গুণ বেশি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে। আর অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট স্বাস্থ্য ভালো রাখতে এবং বিভিন্ন রোগ থেকে দূরে রাখতে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

পুষ্টিবিদদেরমতে মতে, কিশমিশে আঙুরের চেয়ে বেশি ক্যালরি থাকে। কারণ কিশমিশ আঙুরের চেয়ে বেশি শুকনো হয়, যার ফলে ক্যালরি ঘন হয়ে যায়। তাই, আঙুরের চেয়েও কিশমিশে ক্যালরি বেশি থাকে।

যারা ওজন কমানোর চেষ্টা করছেন, তাদের জন্য কিশমিশ একটি ভালো বিকল্প হতে পারে। যদিও কিশমিশে ক্যালরির মাত্রা বেশি থাকে, তারপরও আঙুরের থেকে কিশমিশ বেশি মাত্রায় মেদ ঝরাতে পারে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, আঙুর ও কিশমিশের মধ্যে কোনটা বেশি স্বাস্থ্যকর তা ব্যক্তি বিশেষের প্রয়োজনের ওপর নির্ভর করে। যদি কেউ অ্যান্টিঅক্সিডেন্টকে বেশি গুরুত্ব দিতে চায় তাহলে তার কিশমিশ খাওয়া উচিত। যদি চিনির মাত্রা বেড়ে যাওয়া নিয়ে সমস্যা থাকে, তাহলে আঙুর খাওয়াই ভালো। সূত্র: বোল্ড স্কাই

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার