• সোমবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ৫ ১৪২৭

  • || ০৫ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
লিভারপুলকে রুখে শীর্ষ স্থান ধরে রাখলো ম্যানইউ জোহরা আলাউদ্দিন এমপি করোনায় আক্রান্ত ১০ টাকার ভাড়া নিয়ে সংঘর্ষে আহত ৩০

কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ শামসুদ্দোহা সংবর্ধিত

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৪ ডিসেম্বর ২০২০  

কানাইঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ শামসুদ্দোহা পিপিএম’র অন্যত্র বদলীজনিত কারণে অফিসার্স ক্লাবের উদ্যোগে তাকে বিদায় সংবর্ধনা প্রদান করা হয়েছে। গতকাল বুধবার রাত ৮টায় উপজেলা সম্মেলন কক্ষে এ বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অফিসার্স ক্লাবের সভাপতি সুমন্ত ব্যানার্জির সভাপতিত্বে ও মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা তরিকুল ইসলামের পরিচালনায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবিদা সুলতানা, বিদায়ী সংবর্ধিত অতিথি থানার অফিসার ইনচার্জ শামসুদ্দোহা পিপিএম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা তানভীর আহমদ সরকার, উপজেলা প্রকৌশলী এ.কে.এম রিয়াজ মাহমুদ, থানার ওসি (তদন্ত) জাহিদুল ইসলাম, প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা স্বপন কুমার দাস।

বক্তব্য রাখেন কানাইঘাট প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন, পল্লীবিদ্যুৎ কানাইঘাট জোনাল অফিসের ডিজিএম শাহীন রেজা ফরাজী, থানার এস.আই স্বপন চন্দ্র সরকার, এএসআই পরিমল চন্দ।

বিভিন্ন দপ্তরের সরকারি কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে বিদায়ী অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন্ত ব্যানার্জি বলেন, থানার বিদায়ী অফিসার ইনচার্জ শামসুদ্দোহা পিপিএম একজন নিষ্ঠাবান, জনবান্ধব, কর্তব্য পরায়ন পুলিশ অফিসার ছিলেন। আইন শৃঙ্খলার উন্নয়ন ও পুলিশি সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দিতে তিনি অনেক প্রশংসনীয় কাজ করেছিলেন যা কানাইঘাটবাসী সব-সময় তার কথা স্মরণ রাখবে। একজন চৌকশ পুলিশ অফিসার হিসেবে চাঞ্চল্যকর ঘটনার অনেক আসামীদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ প্রশাসনের সুনাম বয়ে এনেছেন। এসময় নির্বাহী কর্মকর্তা তার উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন।

বিদায়ী অফিসার ইনচার্জ শামসুদ্দোহা পিপিএম বলেন, ‘১৬ মাসের অধিক সময় কানাইঘাটে দায়িত্ব পালন করেছি। পুলিশি সেবা প্রদানে সর্বাত্মক চেষ্টা করেছি। আইন শৃঙ্খলার উন্নয়নে নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন্ত ব্যানার্জি সহ সরকারি কর্মকর্তা, রাজনৈতিক মহল, জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, সূধীজন আমাকে প্রতিটি কাজে সহযোগিতা করেছেন। কানাইঘাটের মানুষজন অনেক ভালো, এখানে চাকরি করে সকলের ভালোবাসা পেয়েছি, যা আমি সব-সময় স্মরণে রাখবো। আমার মত একজন নগন্য পুলিশ অফিসারের বিদায় বেলা অফিসার্স ক্লাবের উদ্যোগে যে সম্মান দেখানো হয়েছে যা আমার জীবনে স্মরণীয় হয়ে থাকবে। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন আমি যেনো মানুষের সেবার মাধ্যমে পুলিশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করতে পারি।’

অনুষ্ঠানের শেষে অফিসার্স ক্লাবের পক্ষ থেকে বিদায়ী অফিসার ইনচার্জ শামসুদ্দোহাকে সম্মাননা ক্রেস্ট সহ অন্যান্য উপহার সামগ্রী তুলে দেন নির্বাহী কর্মকর্তা সুমন্ত ব্যানার্জি সহ অফিসার্স ক্লাবের নেতৃবৃন্দ।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার