• শনিবার   ২৩ জানুয়ারি ২০২১ ||

  • মাঘ ৯ ১৪২৭

  • || ০৯ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সর্বশেষ:
স্বামীর পুরুষাঙ্গ কেটে হাসপাতালে রেখে পালালেন নববধূ সন্ত্রাসী জীবনের পরিণতি বড় কঠোর: মোমেন এক মাস হাতে রেখেই জয় নিশ্চিত করল বাংলাদেশ   শনিবার উদ্বোধন হচ্ছে সিলেটের নতুন স্টেডিয়াম

করোনার ভয় দেখিয়ে ওষুধ বিক্রির পাঁয়তারা

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ১৪ মার্চ ২০২০  

ফেসবুক, ম্যাসেঞ্জারসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে একটি বার্তা কয়েকদিন ধরে ঘুরছে তা হল করোনাভাইরাস মহামারি আকারে দেশে ছড়িয়ে পড়বে তাই তা থেকে মুক্তি পেতে  অনেকগুলো ওষুধের একটি তালিকা যা আগামী  ৮ মাসের জন্য মজুদ করার উপদেশ দেয়া হয়েছে।
শুধু নামীদামী কোম্পানির ঔষধই নয়; স্যানিটাইজার, স্যাভলন, নারীদের স্যানিটারি প্যাডসহ বিভিন্ন পণ্য পর্যাপ্ত পরিমাণে কিনে রাখার কথা বলা হচ্ছে।

এর আগে মাস্ক নিয়েও একই ধরণের প্রতারণামূলক প্রচারণার আশ্রয় নেয় একটি চক্র। ফলে দ্রুত মাস্ক শেষ হয়ে যায় এবং বাজারে সংকট তৈরি হয়। এই সংকটকে পুঁজি করে চক্রটি জনগণের কাছ থেকে প্রচুর টাকা হাতিয়ে নেয়।

 
বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এবং বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা বলেছেন, এই মুহূর্তে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের সর্বোত্তম উপায় হলো যথাযোগ্য স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করা। পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে, যথাসম্ভব জনসমাগম থেকে দূরে থাকা এবং খুব জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বাড়িতে অবস্থান করা। গণপরিবহন যেমন বাস-ট্রেন যতোটা সম্ভব এড়িয়ে চলা। বাইরে বের হওয়ার দরকার হলে মাস্ক পরিধান করা। সতর্ক থাকলেই এই ভাইরাস থেকে নিজেকে নিরাপদ রাখা সম্ভব।

এই ভাইরাসে আক্রান্তের লক্ষণ প্রকাশ পায় দুই থেকে ১৪ দিনের মধ্যে। আক্রান্তের লক্ষণ প্রকাশ পেলে সরকারের সংশ্লিষ্ট বিভাগে যোগাযোগ করলে তারাই বলে দেবে কি করতে হবে।

যেহেতু এই ভাইরাসের কোন ঔষধ এখন পর্যন্ত আবিষ্কার হয়নি, সুতরাং ফেসবুকে যে তালিকা ঘুরে বেড়াচ্ছে সেটি সত্য নয়। এই প্রতারণামূলক তালিকা থেকে এসব পণ্য কিনে ভাইরাস থেকে মুক্তি মিলবে না। বরং বাজারে সংকট তৈরি হবে এবং দরকারের সময় এসব পণ্য পাওয়া কঠিন হবে। এটি শুধুমাত্র অসাধু ব্যবসায়ী ও ওষুধ প্রতিষ্ঠানের প্রোপাগান্ডা যার কোন কার্যকারিতা নেই।  

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সাইবার নিরাপত্তা বিভাগের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) নাজমুল ইসলাম বলেন, ‘এটি এক ধরনের প্রোপাগান্ডা যা বিভ্রান্তির জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানো হচ্ছে। যেসব আইডি থেকে এ ধরনের ম্যাসেজ ছড়ানো হচ্ছে আমরা সেগুলোকে শনাক্ত করছি। তারা অন্যায়ভাবে ভয়ভীতি সৃষ্টি করে আইনের ব্যত্যয় ঘটাচ্ছেন। তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে।’
করোনাভাইরাস প্রতিরোধে পাঁচ ধরনের পরামর্শ দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সেগুলো হল--
এক. ভালোভাবে সাবান পানি দিয়ে হাত ধুতে হবে
দুই. হাত না ধুয়ে চোখ, মুখ ও নাক স্পর্শ না করা
তিন. হাঁচি–কাশি দেওয়ার সময় মুখ ঢেকে রাখা
চার. অসুস্থ পশু বা পাখির সংস্পর্শে না আসা
পাঁচ. মাছ, মাংস ভালোভাবে রান্না করে খাওয়া

প্রয়োজনে আইইডিসিআরের নিচের নম্বরে যোগাযোগ করতে বলেছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়
০১৯৩৭১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭৭১১৭৮৪, ০১৯২৭৭১১৭৮৫

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার