মঙ্গলবার   ২৮ জানুয়ারি ২০২০   মাঘ ১৪ ১৪২৬   ০২ জমাদিউস সানি ১৪৪১

সর্বশেষ:
সিলেটে সরস্বতী পূজা উদযাপনে এসএমপির আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত সভা বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত হলো বাংলাদেশ-পাকিস্তানের শেষ ম্যাচ করোনাভাইরাস: সারাদেশে আইসোলেশন ইউনিট খোলার নির্দেশ ভূকম্পে কেঁপে উঠলো সিলেট ৩ দিনে ই-পাসপোর্টের জন্য ২ হাজার আবেদন
১১০

আ.লীগ বাঁচাতে সাচ্চা নেতা-কর্মী লাগবে: কাদের

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ৮ ডিসেম্বর ২০১৯  

দলের নেতা-কর্মীদের ‘মানুষের কাছে যাওয়ার’ পরামর্শ দিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেছেন, ‘খারাপ লোকেরা দলে এসে সব উন্নয়ন, অর্জন উঁইপোকার মতো খেয়ে ফেলবে। আওয়ামী লীগকে বাঁচাতে হলে সাচ্চা নেতা-কর্মী লাগবে। ত্যাগী নেতা-কর্মীদের বাঁচাতে হবে। বাংলাদেশকে বাঁচাতে হলে আওয়ামী লীগকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে।’

বরিশাল মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনে এসব কথা বলেন কাদের। আজ রোববার নগরের বঙ্গবন্ধু উদ্যানে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এই সম্মেলনের প্রধান অতিথি। সম্মেলন উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতা আমির হোসেন আমু।

দলীয় নেতা-কর্মীদের উদ্দেশে ওবায়দুল কাদের বলেন, দলকে ঐক্যবদ্ধ করুন। দলের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করবেন না। ঘরের মধ্যে ঘর, মশারির মধ্যে মশারি খাটাবেন না।

ওবায়দুল কাদের আরও বলেন, ‘বারবার বলেছি, এখনো বলি, বিলবোর্ড, ভালো ছবি দিয়ে ব্যানার, পোস্টার দিয়ে আওয়ামী লীগের নেতা হওয়া যাবে না। নেতা হতে হলে মানুষের কাছে যান। মানুষের ভালোবাসা, সমর্থন অর্জন করেন। আমাদের সুবিধাবাদী, খারাপ, মাদক ব্যবসায়ী, ভূমিদস্যু, সন্ত্রাসী লোকদের দরকার নেই।’

সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, ‘উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতে হলে শেখ হাসিনাকে বারবার প্রধানমন্ত্রী দরকার। এ জন্য আমাদের অতিথি পাখি, মৌসুমি পাখির দরকার নেই। আমাদের যা আছে তা-ই যথেষ্ট।’

খালেদা জিয়া দুই বছর দুর্নীতির দায়ে দণ্ডিত হয়ে জেলে। কিন্তু এই দুই বছরে তাঁরা দুই মিনিটও আন্দোলন করতে পারেনি বলে মন্তব্য করেন ওবায়দুল কাদের। আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে এখন তারা বিদেশিদের কাছে নালিশ করে। এ জন্য বলি, এখন তারা নালিশ পার্টিতে পরিণত হয়েছে। বিএনপির কোনো নেতৃত্ব নেই।

কাদের বলেন, দুর্নীতিবাজ এক দণ্ডিত নেতা টেমস নদীর ওপার দিয়ে নির্দেশ দেন। সেই নির্দেশ আসে আর ফখরুল সাহেব নাচেন। কিন্তু কোনো রেজাল্ট নেই।

বিএনপিকে উদ্দেশ করে কাদের বলেন, ‘আপনাদের অস্তিত্ব কোথায়? জেনারেল মাহবুব গেছেন, মোরশেদ খান গেছেন। কেবল দুটি উইকেট পড়েছে। আরও উইকেট যাবে। আপনাদের নেতৃত্ব এখন অস্তিত্ব সংকটে। বিএনপি একদিন মুসলিম লীগে পরিণত হবে।’

সম্মেলনে আমির হোসেন আমু বলেন, শেখ হাসিনাকে ২০ বার হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। শেখ হাসিনা আজ জীবিত আছেন বলেই দেশের মানুষ তিন বেলা পেট ভরে ভাত খেতে পারছে, দেশ সারা বিশ্বে এগিয়ে যাচ্ছে। সারা বিশ্বে জাতি হিসেবে বাঙালি আত্মমর্যাদাশীল জাতিতে পরিণত হয়েছে। শেখ হাসিনা এখন সারা বিশ্বের সৎ, সাহসী, দক্ষ, দেশপ্রেমিক দেশনেতা।

আমু বলেন, বিএনপি দেশের মানুষের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করে এ দেশকে পিছিয়ে দিয়েছে। দেশের অর্থ লুটপাট, সন্ত্রাস করে দেশকে এক চরম বিপর্যস্ত করেছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ যখন বিশ্বে রোল মডেল, তখন বিএনপি নানাভাবে যড়যন্ত্র করে এই উন্নয়ন-অগ্রগতির ধারাকে নস্যাৎ করার অপচেষ্টা করছে। এই ষড়যন্ত্র থেকে দেশবাসী এবং আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের সজাগ থাকতে হবে, ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার
এই বিভাগের আরো খবর