• শনিবার   ০৬ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২৩ ১৪২৭

  • || ১৪ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
হবিগঞ্জে বজ্রপাতে ৩ জনের মৃত্যু হবিগঞ্জ করোনা আতঙ্ক: ফুটপাতের খাবারের ব্যবসায় মন্দা বাংলাদেশি সেনাদের নিয়ে গর্ব করা উচিত: অ্যান্তোনিও গুতেরেস জুড়ীতে আরও ২ জনের করোনা শনাক্ত লোভাছড়ায় রাতের আঁধারে পাথর বহন, রাজস্ব ফাঁকি বড়লেখায় করোনায় আক্রান্তদের বাড়ি লকডাউন করলো প্রশাসন স্ত্রীর পর সাবেক মেয়র কামরানও করোনায় আক্রান্ত
১৯৩

আখ ক্ষেতে ছাগল বন্দি: কুদ্দুস বয়াতীর ক্ষোভের জবাব দিলেন লায়লা

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

‘আখ ক্ষেতে ছাগল বন্দি’ নাকি ‘আক্কলে ছাগল বন্দি’, ‘জলে বন্দি মাছ’ হবে নাকি ‘জালে বন্দি মাছ’। লায়লার কণ্ঠে ‘সখী গো আমার মন ভালা না’ গানটি তুমুল জনপ্রিয়তা পাওয়ার পর গানের এমন কিছু কথায় বিভ্রাট হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। যারা ইউটিউবে প্রকাশ করেছেন তারাও গানটির কথা ‘সংগ্রহ’ বলে উল্লেখ করেছেন।

কেউ কেউ বলেছেন, মৈমনসিংহ গীতিকা থেকে নেওয়া হয়েছে এই গান। কিন্তু এরই মধ্যে গানটি নিজের বলে দাবি করেছেন বাংলাদেশের লোকসংগীতের নন্দিত শিল্পী কুদ্দুস বয়াতী। তিনি দাবি করেন, গানটির কথা লিখেছেন ও সুর করেছেন নিজেই, লায়লা সেই গানের কথা বিকৃত করে গেয়েছেন।

গানের কথা বিকৃত করার জন্য লায়লার ওপর ক্ষোভও প্রকাশ করেন কুদ্দুস বয়াতী। কথা বিকৃত করে লায়লা নারী জাতিকে অপমান করেছেন বলেও অভিযোগ করেন এই প্রবীণ শিল্পী। এখানেই শেষ নয়, কপিরাইট আইনে এ গান নিয়ে লড়ছেন কুদ্দুস বয়াতী। এরই মধ্যে গানের আসল লিরিক তিনি কপিরাইট অফিসে জমাও দিয়েছেন।

গানটি নিয়ে কুদ্দুস বয়াতি জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমি লেখাপড়া করিনি ঠিকই কিন্তু ৪৮ বছর ধরে লোক গান গেয়ে চলছি। আমি গানটি তৈরি করেছি। এই গানটিকে বিকৃত করেছেন লায়লা। ‘আখ খেতে ছাগল বন্দি জলে বন্দি মাছ’ কথাটি এমন ছিল না এটা হবে ‘আক্কলে ছাগল বন্দি, জালে বন্দি মাছ। মাছ তো জলেই বসবাস করে। সে কেন সেখানে বন্দি থাকবে, মাছ বন্দি হয় জালে।’

গানটিতে আরও গেয়েছে, ‘এক জাতের নারী আছে শুধুই পান খায়। এই বাড়ির কথা লইয়া ঐ বাড়ি লাগায়।’ আমার কথা হলো বাংলাদেশের ৫ কোটি নারী পান খায়, তারা সবাই কী কথা লাগিয়ে বেড়ায়!’

কুদ্দুস বয়াতি আরও বলেন, ‘আমার গানটি কেন উল্টাপাল্টা করে গাইলো, কেন আমার দেশের নারীদের অপমান করলো! গানের কথা পরিবর্তন করার অধিকার তাকে কে দিল। আমি এই গানের কথা আবিষ্কার করেছি। ২০ বছর থেকে এই গান আমি গেয়ে আসছি। আমি লেখাপড়া জানি না। আমার শিষ্যরা তো লেখাপড়া জানে। তারা এই গানের কথা লিখে রেখেছে।

এ গানের কথাগুলো যদি মৈমনসিংহ গীতিকায় থাকে তাহলে তো আমার কোনো কথাই নাই। আমি পরাজয় মানবো।’

এই গান নিয়ে লায়লার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘গানটি আমি সংগ্রহ করেছি। এই গানের কোনো গীতিকার ও সুরকারের নাম পাইনি। আমি যতটুকু যা পেয়েছি তাই গেয়েছি। কুদ্দুস বয়াতী স্যার গানের যে কথাগুলো বলছেন তা আমার গাওয়া গানে কোথাও নেই। তাই এটা নিয়ে আমার কিছু বলার নাই।’

ক্লোজআপ ওয়ান শিল্পী সুলতানা ইয়াসমিন লায়লার কণ্ঠে গত বছরের ২১ অক্টোবর আরটিভি মিউজিকে প্রকাশিত হয় গানটি। গানের সংগীতায়োজন করেছেন জেকে মজলিশ। এরই মধ্যে আরটিভি স্টেশন থেকে প্রকাশ হওয়া ভিডিওটি ২ কোটি ৯২ লাখেরও বেশিবার দেখা ও শোনা হয়েছে গানটি।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার
বিনোদন বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর