• বৃহস্পতিবার   ০৪ জুন ২০২০ ||

  • জ্যৈষ্ঠ ২১ ১৪২৭

  • || ১২ শাওয়াল ১৪৪১

সর্বশেষ:
সিলেটে লাফাচ্ছে করোনা, প্রতিদিন ভাঙছে আগের রেকর্ড! সিলেটে সরকারি নির্দেশনা মানছে না বেসরকারি হাসপাতাল পাটের আঁশ নয়, শাঁক চাষে আগ্রহী মাধবপুরের কৃষকরা রেকর্ড ৩৪ বিলিয়ন ডলারের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ
১০২

আইনি ব্যবস্থা ছাড়া খালেদা জিয়ার মুক্তির পথ নেই: তথ্যমন্ত্রী

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ৩ অক্টোবর ২০১৯  

তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেছেন, একমাত্র বিচার–প্রক্রিয়ার মাধ্যমে খালেদা জিয়ার মুক্তি সম্ভব। আজ বৃহস্পতিবার মন্ত্রী সচিবালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে বলেন, ‘একটি দুর্নীতির মামলায় বিএনপি নেত্রী কারাগারে রয়েছেন এবং কেবল আদালতই তাঁকে মুক্তি দিতে পারেন।’

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘বিএনপি সব সময় হুমকি দেয়, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য তারা আন্দোলন গড়ে তুলবে। কিন্তু তাঁর মুক্তি আদালতের ব্যাপার এবং অন্য কোনো পথ নেই।’ তিনি বলেন, বিএনপি গত সাড়ে ১০ বছরে কোনো আন্দোলন করতে পারেনি। তিনি আরও বলেন, ‘আমি বিএনপি নেতাদের প্রশ্ন করতে চাই, যেহেতু আইনি প্রক্রিয়া ছাড়া খালেদা জিয়াকে মুক্ত করার কোনো বিকল্প নেই। অতএব তাঁকে মুক্ত করতে নেতারা কোন পথে যাবেন।’

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক বলেন, বিএনপির নেতারা খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন। বিএনপির সাংসদেরা কয়েক দিন আগে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছেন এবং তাঁরা বলেছেন যে, তাঁরা চিকিৎসার জন্য তাঁকে বিদেশে পাঠাবেন। প্রথমে মুক্তি বিষয়ে সমাধানে পৌঁছাতে হবে এবং পরে তাঁরা সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি কোথায় যাবেন।

এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়া কোনো রাজনৈতিক কারণে গ্রেপ্তার হননি এবং তিনি রাজবন্দী নন। তিনি বলেন, ‘অতীতে অনেক রাজনৈতিক নেতা রাজনৈতিক কারণে গ্রেপ্তার হয়েছেন। ওই সব নেতার মুক্তির জন্য আন্দোলনও হয়েছে। কিন্তু খালেদা জিয়ার বিষয়টি তেমন নয়। এতিমদের টাকা মেরে খাওয়ার কারণে দুর্নীতির মামলায় তিনি জেলে রয়েছেন।’

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ২১ আগস্টের হামলার মূল উদ্দেশ্য ছিল আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য এবং আওয়ামী লীগের সভাপতি বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যা করা। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ সম্পর্কে হাছান মাহমুদ বলেন, ‘এখন সব সরকারি ও বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এই স্যাটেলাইটের মাধ্যমে তাদের অনুষ্ঠানমালা সম্প্রচার করছে। এটি আসলেই দেশের জন্য একটা আনন্দের খবর।’ তিনি বলেন, বিটিভির চারটি চ্যানেল কয়েক মাস আগে থেকেই নিরবচ্ছিন্নভাবে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১–এর মাধ্যমে তাদের অনুষ্ঠান সম্প্রচার করছে।

পূর্ণাঙ্গ সার্ভিস প্রদানের জন্য বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটে সব সুযোগ-সুবিধা রয়েছে। তথ্যমন্ত্রী বলেন, সরকার ৪৫টি টিভি চ্যানেলের লাইসেন্স প্রদান করলেও দেশে ৩৫টি টিভি চ্যানেল চালু রয়েছে। তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শাসনামলে বাংলাদেশে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলের যাত্রা শুরু হয়।

হাছান মাহমুদ বলেন, দেশের সম্প্রচারমাধ্যমে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনতে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি বলেন, ‘আমরা ইতিমধ্যে গণমাধ্যমের স্বার্থে বেশ কিছু উদ্যোগ গ্রহণ করেছি। এসব উদ্যোগ গণমাধ্যমে শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনবে।’ তিনি আরও বলেন, সম্প্রচারমাধ্যমকে পর্যায়ক্রমে ডিজিটালাইজ করতে সরকার কাজ করে যাচ্ছে।

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার
রাজনীতি বিভাগের পাঠকপ্রিয় খবর