• বুধবার   ০৩ মার্চ ২০২১ ||

  • ফাল্গুন ১৯ ১৪২৭

  • || ২০ রজব ১৪৪২

সর্বশেষ:
স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন দেওয়া হবে: স্বাস্থ্যমন্ত্রী ২৪ ঘণ্টায় আরো ৫ জনের মৃত্যু দুদকে নতুন চেয়ারম্যান ২২শ রোহিঙ্গা নিয়ে ভাসানচরের পথে ৬ জাহাজ সুরমা নদী পাড়াপাড়ে অতিরিক্ত ভাড়া, ক্ষোভ যাত্রীদের ভারতকে এক নিলেন ইনজামাম সিলেটে করোনা: কমছে মৃত্যুর সংখ্যা জকিগঞ্জ থানার নতুন ওসি কাসেম খাঁন

‘অপেক্ষা করুন, নাসির নিজেই সব স্পষ্ট করবেন’ (ভিডিও)

সিলেট সমাচার

প্রকাশিত: ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

মিস্টার ফিনিশার হিসেবে খ্যাত নাসির হোসেনের ফেসবুকে প্রবেশ করলেই নিজের বিয়ের ছবি ও ভিডিওগুলো দেখা যাচ্ছে। বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে খেলা নাঈম ইসলাম, শফিউল ইসলাম, এনামুল হক বিজয়, সোহরাওয়ার্দী শুভ, শামসুর রহমান শুভরাও উপস্থিত হয়েছিলেন নাসিরের হলুদে। বিয়ের আমেজ শেষ হতে না হতেই বিস্ফোরণ! স্বামী ও সন্তান রেখেকেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন নাসিরের স্ত্রী তামিমা তামি।

দীর্ঘদিন বাংলাদেশের জার্সিতে দেখা যায়নি অলরাউন্ডার নাসিরকে। ২০১১ সালে অভিষেক হয় তার। সবশেষ ২০১৮ সালে খেলেছেন জাতীয় দলের হয়ে। মাঠের বাইরে অনেক ইস্যুতে শিরোনাম হয়েছেন নাসির। গেল ১৪ ফেব্রুয়ারি ভালোবাসা দিবসে বিয়ে করে আবারও আলোচনায় আসেন তিনি।

নাসিরের ঘনিষ্ঠ সূত্র জানায়, সৌদিয়া এয়ারলাইন্সের কেবিন ক্রু হিসেবে কাজ করেন তামিমা। গেল বছর ইন্সটাগ্রামে তার ছবি পোস্ট করেছিলেন নাসির। কিছুক্ষণের মধ্যে আবার ছবি মুছেও দেন তিনি। তখনই গণমাধ্যমকে জানিয়েছিলেন বিয়ে করতে চলেছেন তিনি।

সব ঠিকঠাক চলছিল, কিন্তু শনিবার ফেসবুকে একটি পোস্ট ভাইরালের পর সামনে চলে এসেছে নানা প্রশ্ন।

দুপুরে রাইসা ইসলাম বাবুনি নামক এক ফেসবুক ব্যবহারকারী কয়েকটি স্ক্রিন শট ও একটি ভয়েস কলের রেকর্ড পোস্ট করেন। যেখানে নিজেকে তামিমার স্বামী দাবি করছেন রাকিব নামক এক ব্যক্তি। আরও দাবি করা হয় তাদের ঘরে রয়েছে একটি মেয়ে সন্তানও। মুহূর্তের মধ্যে ওই পোস্টটি ভাইরাল হয়ে যায়।

রাকিবের দাবি, ২০১১ সালে রাকিবের সঙ্গে তামিমার বিয়ে হয়। তালাক না দিয়ে নতুন বিয়ে করেছেন তামিমা। এখনও তাদের মধ্যে বৈবাহিক সম্পর্ক রয়েছে। তাই তামিমার বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরিও (জিডি) করেছেন তিনি।

পোস্টে অডিও কলে নাসিরের পরিচয় দিয়ে রাকিবকে ফোন করা হয়। সেখানে জানতে চাওয়া হয় কেনো জিডি করেছেন তিনি। জবাবে রাকিব পাল্টা প্রশ্ন করা হয়, কেনো বিয়ে করেছেন তিনি। জবাবে বলা হয় স্বামী ও সন্তান থাকার বিষয়টি জেনেই বিয়ের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

বিষয়টি নিয়ে একাধিবার নাসিরের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা চালানো হলে তার ব্যবহৃত দুটি মোবাইল নম্বর বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। নাসিরের বড় ভাই নাসিম হোসেন জানিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য করতে রাজি নন।

তিনি বলেন, আপাতত কিছু বলতে চাচ্ছি না। ‘অপেক্ষা করুন, নাসির নিজেই সব স্পষ্ট করবেন।’

সিলেট সমাচার
সিলেট সমাচার